ইসলামাবাদঃ  লাগাতার সীমান্তে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন। পাকিস্তানের দিক থেকে সীমান্তের এপারে লাগাতার হেভি শেলিং। কিন্তু তাও পাকিস্তানের দাবি ভারতই নাকি লাগাতার সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করছে। আর সেই অভিযোগে ইসলামাবাদে নিযুক্ত ভারতীয় ডেপুটি হাইকমিশনার গৌরব আলুওয়ালিয়া তলব করল পাকিস্তান সরকার। একই সঙ্গে এই বিষয়ে ডেপুটি হাইকমিশনারের কাছে অভিযোগ জানিয়েছে ইমরান খান সরকার।

পাক বিদেশ দফতরের দক্ষিণ এশিয়া ডেস্কের ভারপ্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত ডিরেক্টর জেনারেল মহম্মদ ফয়জল জানিয়েছেন, ‘গত ২ মে এবং ৫ মে নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারতীয় সেনার গোলাবর্ষণে তিনজন সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর জখম হয়েছেন দু’জন। আমরা ভারতীয় কূটনীতিককে জানিয়েছি, সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘনের এই ঘটনা আঞ্চলিক শান্তি এবং সুস্থিতির পক্ষে বিপজ্জনক। এর ফলে কৌশলগত অবস্থান নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির সম্ভাবনা বাড়বে।’

শুধু তাই নয়, ফয়জলের মতে, নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তেজনা প্রশমনের উদ্দেশ্যে নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব মেনে সেখানে রাষ্ট্রপুঞ্জের সামরিক পর্যবেক্ষক দলকে পরিদর্শনের অনুমতি দেওয়া উচিত ভারতের। ২০০৩ সালের সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি মেনে নয়াদিল্লিকে হামলার অভিযোগের নিরপেক্ষ তদন্ত করারও আবেদন জানান তিনি। যদিও পাকিস্তানের এই দাবি মানতে নারাজ ভারত। কারণ ভারতের পালটা দাবি, কখনও ভারতীয় সেনাবাহিনী গোলাবর্ষনের পক্ষে নয় । কিন্তু সীমান্তের ওপার থেকে গুলি চললে ছেড়ে কথা বলা হবে না বলে ফের হুঁশিয়ারি ভারতের।