ইসলামাবাদ: ভারতের সঙ্গে চিনের সংঘাত চরমে। প্রায় এক মাসের কাছাকাছি সময় ধরে মুখোমুখি দাঁড়িয়ে আছে দুই দেশের সেনা। ভারত ও চিনের সীমান্তের কাছে গালোয়ান ভ্যালিতে তাঁবু বানিয়ে রয়েছে চিনের সেনা। এই পরিস্থিতিতে আবার চিনের হয়ে সওয়াল করল পাকিস্তান।

বরাবরই বন্ধু চিন-পাকিস্তান একে অপরকে সমর্থন করে থাকে। ভারত-চিন সংঘাতে ফের চিনের পক্ষ নিল পাকিস্তান। পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বললেন, ‘ভারতের অবৈধ নির্মাণের জন্য চিনের সঙ্গে সংঘাত বেঁধেছে।’

পাক সংবাদমাধ্যম ‘রেডিও পাকিস্তান’-এ প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, কুরেশির দাবি, চিন কথা বলে সমস্যার সমাধান করতে চেয়েছিল। তাঁর কথায়, ”ভারতে অবৈধ নির্মাণ নিয়ে তো চিন আর চুপ করে থাকতে পারে না!”

লাদাখে ভারতের নির্মাণ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশও করেছেন তিনি। এতে নাকি ভারতের ঔদ্ধত্য সামনে আসছে, এমন মন্তব্যও করেছেন কুরেশি।

গত কয়েকদিন ধরে লাদাখের কাছে চিন সীমান্তে যে সংঘাতে মুখোমুখি হয়েছে ভারত ও চিনের সেনাবাহিনী। এই প্রসঙ্গেই এবার বার্তা দিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ট্যুইট করে মধ্যস্থতা করার কথা বলেছেন তিনি। লিখেছেন, ”আমরা ভারত ও চিন উভয়কেই বলেছি যে আমেরিকা প্রস্তুত আছে। সীমান্ত সমস্যা নিয়ে আমরা মধ্যস্থতা করতে রাজি।

গত কয়েকদিন ধরে লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলের কাছে লাদাখে চোখে চোখ রেখে দাঁড়িয়ে আছে দুই দেশের সৈন্য। মূলত প্যাংগং তোসো লেক ও গালোয়ান ভ্যালির কাছে এই ঘটনা ঘটছে। ওই অঞ্চলে চিনের অন্তত ২০০০-২৫০০০ সৈন্য এগিয়ে এসেছে।

প্রাক্তন আর্মি কমান্ডার লেফট্যানেন্ট জেনারেল ডিএস হুদা বলেন, ‘এটা মোটেই স্বাভাবিক ঘটনা নয়। বিশেষ গালোয়ান ভ্যালিতে এভাবে চিনা সৈন্যের আনাগোনা বেশ উদ্বেগের বলে উল্লেখ করেছেন তিনি, কারণ ওই অঞ্চল নিয়ে দুই দেশের মধ্যে কোনও বিতর্ক নেই। অথচ সেখানেই সৈন্য মোতায়েন করেছে চিন।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV