নয়াদিল্লি: ফের ভারতীয় আকাশসীমায় ঢুকে পড়ল পাকিস্তানের পাঠানো ড্রোন। পঞ্জাবের ফিরোজপুরে সীমান্ত এলাকায় আকাশে ড্রোনটি উড়তে দেখা যায়। ড্রোনটি দেখেই গুলি ছোড়ে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বা বিএসএফ।

বিএসএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার রাতে ভারত-পাক সীমান্তের তেন্দিওয়ালা গ্রামের উপর দিয়ে একটি ড্রোন উড়তে দেখেন কর্তব্যরত বিএসএফ জওয়ানরা। প্রথমে কিছুক্ষণ আকাশে উড়েই ফের পাকিস্তানের দিকে ফিরে যায় ড্রোনটি। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই ফের ভারতীয় আকাশসীমায় ঢুকে পড়ে ড্রোনটি। দেখা মাত্রই ড্রোনটিকে লক্ষ করে গুলি ছুড়তে শুরু করেন বিএসএফ জওয়ানরা। তড়িঘড়ি সতর্কতা জারি করা হয় ভারত-পাক সীমান্ত বরাবর অবস্থিত একাধিক গ্রামগুলিতে। সীমান্তে নজরদারি আরও বাড়িয়ে দেয় সেনা।

মঙ্গলবার সকাল থেকে ফিরোজপুর লাগোয়া বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি শুরু করেন বিএসএফ জওয়ানরা। ড্রোনের খোঁজে এলাকায় চলে চিরুনি তল্লাশি। তবে ড্রোনের ধ্বংসাবশেষএর হদিশ মেলেনি। লাগাতার সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে চলেছে পাকিস্তান। জম্মু কাশ্মীরে প্রায়ই ভারতীয় সেনাদের লক্ষ করে গুলি, মর্টার হামলা চালাচ্ছে পাক সেনা। এমনকী সীমান্ত এলাকার একাধিক গ্রামকেও নিশানা করছে পাকিস্তান।

বিএসএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, ড্রোনের মাধ্যমে ভারতে অস্ত্র, টাকা ও ড্রাগ পাচারের নয়া কৌশল নিয়েছে পাক জঙ্গিরা। এর আগেও একাধিক জঙ্গিকে গ্রেফতার করে এব্যাপারে বেশ কিছু তথ্যও মিলেছে। ২০১৯ সালেও পাকিস্তান থেকে বেশ কয়েকটি ড্রোন উড়ে আসে ভারতীয় ভূখণ্ডে। তবে সেই ঘটনা সেনার নজর এড়ায়নি। একাধিকবার পাক ড্রোন গুলি করে নামিয়েছে ভারতীয় সেনা। তবে সোমবার রাতে এই ড্রোনটি সম্পর্কে বিশেষ তথ্য নেই সেনার কাছে। ড্রোনটি মাদক বা টাকা পাচার করতে আনা হয়েছিল নাকি ভারতীয় সেনাবাহিনীর অবস্থানের ছবি তুলছিল তা এখনও স্পষ্ট নয় গোয়েন্দাদের কাছেও।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ