স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: বন্যা বিপর্যস্ত কেরলের সাহায্যে রঙ তুলির টানে ক্যানভাস ফুটিয়ে তুললেন শিল্পীরা৷ ছবি বিক্রির টাকা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়া হবে দুর্গদের কাছে৷ সাঁতরাগাছি কেদারনাথ ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে এই আয়োজন করা হয় সাউথ হাওড়া বিবেকানন্দ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে৷

ভয়াবহ বন্যা৷ ঘর বাড়ি জলের গ্রাসে৷ সর্বশান্ত মানুষ৷ মৃত্যুপুরী ঈশ্বরের আপন দেশ৷ চার দিকে হাহাকার৷ দুর্গতের সাহায্যে এগিয়ে এসেছিল গোটা দেশ৷ সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী ও বহু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন৷ কিন্তু তাতেই চাহিদার পুরোটা মেটেনি৷ দাক্ষিণী রাজ্যের পুনর্গঠনে প্রয়োজন আরও অর্থের৷ এগিয়ে এসেছেন হাওড়া জেলার ২৮ জন চিত্রকর৷

রং, তুলি হাতে শিল্পীরা ভরিয়ে তোলেন ক্যানভাস৷ তার কোনটিতে প্রকৃতির স্নিগ্ধতা, আবার কোনটিতে তার রুদ্র রূপের সাক্ষ৷ শুধু শিল্পীরা নন৷ ছবি আঁকল বহু পড়ুয়াও৷ বার্তা পৌঁছাল, কেউ বিপদে পড়লে এগিয়ে আসতে হয় দ্বিধাহীনভাবে৷ অনুষ্ঠানে হাজির থেকে শিল্পী ও ছাত্র ছাত্রীদের উৎসাহীত করেন মন্ত্রী অরূপ রায়৷ উদ্যোক্তাদের প্রশংসা করেন তিনি৷

শিল্পীদের সৃষ্টি বাজারে বিক্রির পর তা থেকে সংগৃহীত অর্থ তুলে দেওয়া হবে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে৷ পরে তা পৌঁছে যাবে কেরলের দুর্গতদের কাছে৷ সাউথ হাওড়া বিবেকানন্দ ফাউন্ডেশনের সম্পাদক পার্থ বসু জানান, ‘‘কেরলের ভয়াবহ বন্যার পর ধীরে ধীরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে কেরলের। আতঙ্ক কাটিয়ে মানুষ স্বাভাবিক জীবনে ফিরছেন। বাংলা থেকেও প্রচুর শ্রমিক সেখানে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। এরাও আটকে পড়েছিলেন। এদের সকলের পাশে দাঁড়াতে চাই। তাই এই ছবি আঁকার আয়োজন৷’’