নয়াদিল্লি: আড়াই দশকের বর্ণময় কেরিয়ারে ডাবলস এবং মিক্সড ডাবলস মিলিয়ে জিতেছেন ১৮টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম। ৪৬-এও নট আউট লিয়েন্ডার পেজ কেরিয়ারে অংশ নিয়েছেন ৯৭টি গ্র্যান্ড স্ল্যামে। অর্থাৎ ১০০টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম আবির্ভাব থেকে তিন ধাপ দূরে দাঁড়িয়ে ভারতীয় টেনিস সার্কিটের সবচেয়ে বর্ণময় তারকা। কেরিয়ারে ১০০ গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেলে তবেই বিদায় জানাবেন পেশাদার টেনিস সার্কিটকে। একইসঙ্গে টেনিস প্লেয়ার হিসেবে রেকর্ড অষ্টমবার অলিম্পিকে অংশগ্রহণের বিষয়টিও রয়েছে তাঁর মাথায়। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২০-তেই লিয়েন্ডারের সাধপূরণ হয়ে যাওয়ার কথা ছিল।

তাই সবকিছু ভাবনাচিন্তা করে ২০২০’র পর অবসর নেবেন বলে আগেই ঘোষণা করেছিলেন পেজ। কিন্তু অতিমারী করোনাভাইরাস এসে নষ্ট করে দিয়েছে সমস্ত পরিকল্পনা। মারণ ভাইরাসের জেরে চলতি বছর বাতিল হয়েছে অভিজাত উইম্বলডন। ফরাসি ওপেন এবং যুক্তরাষ্ট্র ওপেন আয়োজন নিয়েও রয়েছে সংশয়। জুলাইয়ে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও টোকিও অলিম্পিক পিছিয়ে গিয়েছে একবছর। এমতাবস্থায় দাঁড়িয়ে শততম গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেলার পাশাপাশি রেকর্ড অষ্টমবার অলিম্পিক প্রতিনিধিত্ব নিয়ে সংশয়ে পেজ।

টেবিল টেনিস তারকা মুদিত দানির সঙ্গে একটি অনুষ্ঠানে ‘চ্যাট শো’য়ে এসে লিয়েন্ডার বলেন, ‘অলিম্পিক এখনও অনেক দেরি। জুলাই কিংবা অগাস্টে খেলাধুলো শুরু করা যাবে বলে মনে হচ্ছে না। অক্টোবর-নভেম্বরে কী শুরু করা যাবে, কে জানে। কিন্তু আমি নিজেকে প্রস্তুত রাখছি লকডাউন পরবর্তী সময়ের জন্য। পুনরায় খেলাধুলো শুরু হওয়ার পর আমরা সবদিক পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব ২০২১ শেষবারের জন্য কোর্টে নামাতে পারা যাবে কীনা।’

তাঁর পরিকল্পনা নিয়ে আরও বলতে গিয়ে লিয়েন্ডার গ্র্যান্ড স্ল্যাম পরিসংখ্যানও তুলে ধরেন। ‘আমি এখনও অবধি ৯৭টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেলেছি। আর ৩টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেললে আমার ১০০ গ্র্যান্ড স্ল্যাম পূর্ণ হবে। পাশাপাশি অষ্টমবারের জন্য অলিম্পিক খেলে টেনিস প্লেয়ার হিসেবে সর্বাধিক অলিম্পিক খেলার নজির গড়ার হাতছানি আছে। কিন্তু কোনও কারণে যদি এগুলো সম্ভব না হয় তাহলেও কোনও আক্ষেপ নেই। আমি আমার কেরিয়ার নিয়ে খুশি।’ জানান কলকাতার ছেলে দেশের সর্বকালের সেরা টেনিস তারকা।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প