নয়াদিল্লি: অপেক্ষা আর মাত্র কিছুক্ষণের। একটু পরেই দেশজুড়ে করোনার টিকাকরণ অবিযান শুরু হয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ এই টিকাকরণ অভিযানের সূচনা করবেন।

দেশের বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে আপাতত প্রায় ৩ কোটি করোনা-যোদ্ধাকে টিকা দেওয়া হবে। তালিকায় রয়েছেন পদ্ম পুরস্কারপ্রাপ্ত চিকিৎসক থেকে শুরু করে সাফাইকর্মীরা।

কিছুক্ছণের মধ্যেই দেশব্যাপী টিকা অভিযান শুরু হতে চলেছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সকাল ১০.৩০টায় সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল জুড়ে ৩,০০৬ সাইট থেকে টিকাকরণ কর্মসূচির সূচনা করবেন।

বিশ্বের বৃহত্তম টিকাকরণ করম্সূচির সূচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী। প্রতিটি সাইটে ১০০ জনকে করোানার টিকা দেওয়া হবে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে তাঁর সর্বশেষ ভার্চুয়াল বৈঠকের সময় জানিয়েছিলেন, প্রথম ধাপে দেশের প্রায় ৩ কোটি করোনা যোদ্ধাকে টিকা দেওয়া হবে। টিকাকরণের জন্য প্রথমেই স্বাস্থ্যসেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।