মালদহ: ভুট্টা খেতে চোর ধরতে গিয়ে আঙুল কাটা গেল জমির মালিকের। চোর ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে জমির মালিককে। এতেই আঙুল কাটা যায় ওই ব্যক্তির। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহর বৈষ্ণবনগর থানার ১৬ মাইল গ্রামে৷ আহত ব্যক্তি বর্তমানে মালদহ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত গা ঢাকা দিয়েছে। তদন্তে নেমেছে বৈষ্ণবনগর থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৬ মাইল গ্রামের বাসিন্দা মাইনুল হক তার আড়াই বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষ করেছেন। কয়েকদিন ধরে তিনি বুঝতে পারছিলেন তাঁর খেত থেকে কেউ বা কারা ভুট্টা চুরি করছিল৷ প্রথম দিকে তিনি বুঝতে না পারলেও পরে বুঝে যান এই কাজ এলাকার যুবক বাহাদুর ঘোষের।

কিন্তু তাঁর কাছে কোনও প্রমাণ না থাকায় তিনি বাহাদুর ঘোষকে চুরির বিষয়ে কিছু বলতে পারছিলেন না৷ এরপর তিনি পরিকল্পনা করেন বাহাদুরকে তিনি হাতেনাতে ধরবেন৷ সেই মতো বাহাদুর খেতে চুরি করতে আসলে তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে মাইনুল হক৷ আর সেই সময় বাহাদুরের কাছে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাইনুলের হাতে কোপ মারে।

ঘটনায় মাইনুলের ডান হাতের তিনটি আঙুল কাটা যায়। আঙুল কাটার যন্ত্রণায় মাইনুল চিৎকার করলে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় বাহাদুর৷ গ্রামবাসীরা ভুট্টা খেতে গিয়ে দেখেন মাটিতে পড়ে যন্ত্রণায় ছটফট করছে মাইনুল৷ সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় মালদহ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে৷ বর্তমানে তিনি সেখানেই ভরতি আছেন৷

এদিকে ঘটনার পর থেকে গা ঢাকা দিয়েছে অভিযুক্ত বাহাদুর ঘোষ৷ মাইনুল-এর পরিবারের পক্ষ থেকে বাহাদুর ঘোষের নামে বৈষ্ণবনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।