নয়াদিল্লি: ক্রমশ বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। এরই মধ্যে নয়া তথ্য প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। শুক্রবার স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে দেশের ৬০ শতাংশ করোনা রোগী ছড়িয়ে রয়েছে পাঁচটি রাজ্যে। অ্যাক্টিভ করোনা রোগীর ৬০ শতাংশ রয়েছে এই পাঁচ রাজ্যে। আরও জানা গিয়েছে মোট ১৩টি রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে পাঁচ হাজারেরও কম অ্যাক্টিভ রোগী রয়েছে।

শুক্রবার ট্যুইট করে স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে যেসব রাজ্য সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত, তাদের দিকে কড়া নজর রেখেছে কেন্দ্র। রাজ্য সরকারগুলির সঙ্গে সমন্বয় সাধন করে করোনা মোকাবিলার কাজ করা হচ্ছে। খুব দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে বলেও আশা প্রকাশ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্র পরিকাঠামোর উন্নয়নের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। অক্সিজেন সরবরাহ থেকে আইসিইউ পরিকাঠামোর সংখ্যা বৃদ্ধি করার মত কাজ চলেছে। ফলে করোনা মোকাবিলায় অনেকটাই সাফল্য পেয়েছে দেশ।

এদিকে, দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশজুড়ে আক্রান্ত হলেন আরও ৯৬ হাজার ৪২৪ জন। এই নতুন সংক্রমণের জেরে দেশে মোট করোনা সংক্রমণ বেড়ে দাঁড়াল ৫২ লক্ষ ১৪ হাজার ৬৭৮। শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশজুড়ে মৃত্যু হয়েছে মোট ১,১৭৪ জনের। এর ফলে দেশে করোনার জেরে মোট মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৪ হাজার ৩৭২।

মোট ৫২ লক্ষের বেশি আক্রান্তের মধ্যে দেশে অ্যাক্টিভ করোনা কেস রয়েছে ১০ লক্ষ ১৭ হাজার ৭৫৪। সুস্থ হয়ে উঠেছে ৪১ লক্ষ ১২ হাজার ৫৫২ জন। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট উল্লেখ করে সংবাদসংস্থা এএনআই এই পরিসংখ্যান প্রকাশ করেছে।

তবে এত কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও করোনার ভ্যাক্সিন নিয়ে কিছুটা হলেও আশার কথা শোনাল রাশিয়া। নভেম্বর মাসেই ভারতের বাজারে মিলতে পারে রাশিয়ার তৈরি করোনার প্রতিষেধক স্পুটনিক-ভি। বুধবার একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকারে এই কথা জানিয়েছেন, রুশ প্রতিষেধক সংস্থার সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ ভারতীয় সংস্থা ডঃ রেড্ডি ল্যাবের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জিভি প্রসাদ।

এদিন তিনি আরও বলেন, বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া মারণ ব্যাধিকে বশে আনতে আমরা রাশিয়ান সংস্থা আরডিআইএফ’র সঙ্গে একটি মউ চুক্তি স্বাক্ষর করেছি। এই চুক্তি অনুযায়ী যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভারতের বাজারে করোনার ভ্যাক্সিন নিয়ে আসা। তবে তিনি আরও জানিয়েছেন বর্তমান এই অতিমারীর হাত থেকে রেহাই পেতে ভারত সহ বিশ্বের সমস্ত দেশই দিনরাত এক করে নিজেদের সাধ্যমত ভ্যাক্সিন আবিস্কারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।