নয়াদিল্লি: প্রত্যেক বাবা-মাই চান সন্তান (ছেলে/মেয়ে) ডাক্তার হোক কিংবা ইঞ্জিনিয়ার হোক৷ তথাকথিতের এই তালিকায় রয়েছে অবশ্য আরও একটি পেশা, শিক্ষকতা বা টিচিং৷ সম্প্রতি, অভিভাবক এবং শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিয়ে একটি সার্ভে করে গ্লোবাল টিচার স্টেটাস ইনডেক্স (জিটিএসআই)৷ সার্ভের তথ্যই জানাচ্ছে, ছেলেমেয়েকে টিচার বানাতে একেবার মুখিয়ে রয়েছে ভারতীয় অভিভাবকরা৷ আর, সেই চেষ্টাই ভারতকে পৌঁছে দিয়েছে একেবারে প্রথমস্থানে৷

ভারতের সঙ্গে একইস্থানে রয়েছে মালয়েশিয়া৷ দ্বিতীয় এবং তৃতীয়স্থানে রয়েছে চিন এবং ঘানা৷ দেখা গিয়েছে, ৫৪ শতাংশেরও বেশি ভারতীয় অভিভাবক ছেলেমেয়েদের কেরিয়ার শিক্ষকতায় তৈরি হোক চেয়েছেন৷ ২০১৩ সালের সার্ভেতে চিন ছিল প্রথমস্থানে৷ যেখানে বেশীরভাগ চিনা নাগরিকই চেয়েছিলেন সন্তানদের পেশা শিক্ষকতা হোক৷ সার্ভেতে উঠে আসে আরও একটি বিষয়৷ স্টুডেন্টরা কতখানি সন্মান জানাচ্ছেন টিচারদের? প্রশ্নটি উত্তরে অনুযায়ী ভারত রয়েছে দ্বিতীয়স্থানে৷ উগান্ডা প্রথম এবং ঘানা রয়েছে তৃতীয়স্থানে৷

প্রতীকি ছবি

শিক্ষকতা নিয়ে অনেক অভিভাবকদেরই ভুল ধারণা রয়েছে৷ অনেকেই মনে করেন, মেয়েদের জন্যই একেবারে সঠিক পেশা শিক্ষকতা৷ কিন্তু, পছন্দ ছাড়া কোন পেশাতেই দীর্ঘস্থায়ী হওয়া সম্ভব নয়৷ একথা মাঝেমধ্যেই ভুলে যান তারা৷ জোর করে নিজের পছন্দ বাস্তবায়িত করার চেষ্টা করেন সন্তানের মধ্যে দিয়ে৷ আর, সেখান থেকে অনেক সময় তিক্ত অভিজ্ঞতাও তৈরি হয়৷ তাই, নিজের সন্তানকে বুঝুন৷ জোর করে কোন বিষয় চাপিয়ে না দিয়ে তার পছন্দকে গুরুত্ব দিন৷