রিয়াধ: ইদের আর মাত্র দু’দিন বাকি। তার আগে সৌদি আরবে জড় হলেন ২০ লক্ষ মুসলিম। সারা বিশ্ব থেকে বিশেষ প্রার্থনায় পুন্যলাভ করতে সেখানে গিয়েছেন তাঁরা।

বৃহস্পতিবার থেকেই মুসলিমদের তীর্থ হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সৌদি আরবের স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় মক্কা থেকে মিনার পথে যাত্রা শুরু করেন তাঁরা।

এই মিনায় যাত্রার মধ্য দিয়েই হজ পালনের সূচনা হয়। ১০ আগস্ট আরাফাতের ময়দানে অবস্থিত মসজিদে নামাজ পড়া হবে। মুজদালিফায় খোলা আকাশের নিচে সারা রাত অবস্থানের পর শয়তানের স্তম্ভে পাথর নিক্ষেপের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হয়।

মূলত ৯ জিলহজ আরাফাতের ময়দানে অবস্থানের দিনকেই হজের দিন বলা হয়।

ইসলামের বিধান মোতাবেক, ১০ জিলহজ মিনায় প্রত্যাবর্তনের পর হাজিদের পর্যায়ক্রমে চারটি কাজ সম্পন্ন করতে হয়। শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ, আল্লাহর উদ্দেশে পশু কোরবানি, মাথা মুণ্ডন করা এবং তাওয়াফে জিয়ারত।

এরপর ১১ ও ১২ জিলহজ অবস্থান করে প্রতিদিন তিনটি শয়তানকে প্রতীকী পাথর নিক্ষেপ করবেন হাজিরা। সবশেষে কাবা শরিফকে বিদায়ী তাওয়াফের মধ্য দিয়ে শেষ হবে হজের আনুষ্ঠানিকতা।

প্রতি বছরই কলকাতা হয়ে হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মানুষ হজ করতে যান সৌদি আরবে। এ বছরও প্রায় ১২ হাজার মানুষ গিয়েছেন হজ করতে৷ এদের মধ্যে প্রায় ৪০ শতাংশ মহিলা৷

গত বছরের তুলনায় চলতি বছর হজযাত্রীদের সংখ্যা বেড়েছে৷ তবে খরচ মাথা পিছু ২০ হাজার টাকা বেড়েছে৷ ভারত থেকে দু’টি ক্যাটাগরিতে যান হজযাত্রীরা৷ গ্রিন ক্যাটাগরিতে যারা যান তাদের মাথা পিছু প্যাকেজ তিন লক্ষ ২ হাজার টাকা৷ আর আ-জিজিয়া ক্যাটাগরিতে ২ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকা৷ সর্বাধিক ৪১ দিনের প্যাকেজ৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও