জয়পুর: লেকে পড়ে আছে হাজার হাজার পাখীর মৃতদেহ। ভয়াবহ সেই দৃশ্যের সাক্ষী রাজস্থান। বেশির ভাগই পরিযায়ী পাখী বলে মনে করা হচ্ছে। কোনও এক অজ্ঞাত কারণে রাজস্থানের সম্ভর লেকে এই পরিযায়ী পাখীদের মৃত্যু হয়েছে।

মৃত পাখীদের থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে দেখে অনুমান করা হচ্ছে avian botulism বা এক ধরনের ফ্লু-তে এদের মৃত্যু হয়েছে। সাধারণত বিষাক্ত খাবার খেয়েই এই রোগ হয় পাখীদের।
৭০ জনের একটি সদস্য দল খতিয়ে দেখতে গিয়েছে ওই লেক। অন্যান্য পাখীদের মধ্যে যাতে আর ওই রোগ ছড়িয়ে না পড়ে,তার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পাখীদের মৃতদেহ গুলি তাই সরিয়ে নেওয়ার কাজ চলছে। পুরো পরিস্থিতি খতিয়ে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রাথমিকভাবে ফ্লু বলে মনে করা হলেও সেই দাবি উড়িয়ে দিচ্চে ভোপালের ল্যাবরেটরি। এই বিষয়ে দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেছেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। ঘটনার কোনও যুক্তিযুক্ত ব্যাখ্যা পাচ্ছেন না স্থানীয় মানুষ।

সোমবার থেকে এই মৃতদেহ গুলি চোখে পড়ছে। এক সপ্তাহ হয়ে গিয়েছে প্রায়। সোমবার ৭১৬ পাখীর মৃতদেহ সরানো হয়। পরের দিনগুলোতে যথাক্রমে ১৬২২, ১৯২২, ৫৪০, ৩২৬৫ টা করে পাখীর দেহ সরানো হয়েছে।
শুক্রবার হাইকোর্ট সরকারের কাছে এই মৃত্যুর কারণ জানতে চেয়েছেন। ২২ নভেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে। এই ধরনের ঘটনা ভারতে প্রথমবার ঘটল বলে জানিয়েছেন রাজস্থানের বনমন্ত্রী সুখরাম বিষ্ণোই।