করোনা পরবর্তী সময়ে বিশ্বজুড়ে বদলে গিয়েছে মানুষের জীবনযাত্রা। সাধারণ মানুষের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে নিরাপত্তা। আর সেই কারণেই মানুষের কাছে ক্রমেই গ্লাভস থেকে শুরু করে মাস্ক এবং অন্যান্য জিনিসের গুরুত্ব ক্রমেই বেড়েছে। এবারে জানা গিয়েছে করোনা পরবর্তী সময়ে সাধারণ মানুষের কথা ভেবে অ্যামাজনে আকর্ষণীয় ছাড়ে নিয়ে আসা হল ফেস শিল্ড।

 

ই-কমার্সের দুনিয়াতে যথেষ্ট জনপ্রিয় অ্যামাজন। একাধিকবার গ্রাহকদের কথা ভেবে তাদের তরফে নিয়ে আসা হয়েছে বেশ কিছু সুবিধা। এমনকি সাধারণ মানুষের কথা ভেবে ছাড় ও ক্যাশব্যাকের সুবিধাও নিয়ে এসেছে তারা। আর সেই কারণেই ক্রেতাদের কাছে ক্রমেই গুরুত্ব বেড়েছে অ্যামাজনের। পাশপাশি বিভিন্ন সময়ে ক্রেতাদের নজর আকর্ষণ করার জন্য তাদের তরফে নিয়ে আসা হয়ে থাকে বেশ কিছু পদক্ষেপ। সেই কারণেই মনে করা হচ্ছে সুবিধা হবে সাধারণ মানুষের। মূলত একাধিক কোম্পানির তরফে ইতিমধ্যে নিয়ে আসা হয়েছে বেশ কিছু ফেস শিল্ড। আর এবারে অ্যামাজনের তরফে নিয়ে আসা হয়েছে নতুন ফেস শিল্ড।

আরও পড়ুন – ডেপসাং জুড়ে নয়া নির্মাণ চিনের, ভারতের হাতে উপগ্রহ চিত্র

oriley orsno4 175 micron disposable face shield ক্রেতারা অ্যামাজন থেকে কিনতে পারবেন মাত্র ৫২ টাকাতে। অর্থাৎ যারা এ এই মুহূর্তে বিভিন্ন জায়গা থেকেও ফেস শিল্ড কিনতে পারেন নি তাদের কাছে এটি সেরা উপায়। করোনা পরবর্তী সময়েও সাধারণ মানুষের কাছে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ সামাজিক দূরত্ব পালন এছাড়াও বাকি সমস্ত নিয়ম মেনে চলা সাধারণ মানুষের কাছে সমান ভাবে গুরুত্বপূর্ণ। জানানো হয়েছে অ্যামাজন পে থেকে কিনলে ক্রেতারা পাবেন ক্যাশব্যাকের সুবিধাও। ১৭৫ মাইক্রনের এই ফেস শিল্ড নিয়ে আসার ফলে সুবিধা পাবেন সাধারণ মানুষজন। সহজেই নিরাপত্তা পাবেন মানুষজন।

এছাড়াও সহজেই ক্রেতারা বাকিদের সঙ্গে এই ফেস শিল্ড পরে কথা বলতে পারবেন। কোন রকম ঝুঁকি থাকবে না। এই মুহূর্তে একাধিক মানুষজন অসুবিধার মধ্যে পরেছেন এই শিল্ড না পেয়ে। আর সেই কারণে অ্যামাজনের তরফে নিয়ে আসা হয়েছে এই শিল্ড।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।