তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: পশ্চিমবঙ্গ সমবায় বাঁচাও মঞ্চের বাঁকুড়ার রাইপুর ব্লক প্রথম সাংগঠনিক কনভেনশন অনুষ্ঠিত হল। শুক্রবার রাইপুরে ল্যাম্পসের এসএইচজি কমিউনিটি হলে এই সাংগঠনিক কনভেনশনের উদ্বোধন করেন কৃষক নেতা ও প্রাক্তন মন্ত্রী উপেন কিস্কু। উপস্থিত ছিলেন সিপিএম নেতা প্রতীপ মুখার্জী, হরিসাধন মণ্ডল সহ ৮০ জন প্রতিনিধি।

কনভেনশনে মূল প্রতিবেদন পেশ করেন হরিসাধন মণ্ডল। পরে প্রতিবেদনের উপর ১০ জন প্রতিনিধিকে নিয়ে আলোচনা হয়৷ ওই আলোচনা সভায় প্রত্যেকেই কেন্দ্রের মোদী সরকারের সমবায় বিরোধী ভূমিকা৷ রাজ্যের তৃণমূল সরকারের সমবায়গুলির প্রতি ধ্বংসাত্মক নীতি নিয়েছে বলে অভিযোগ করেন। তাঁদের অভিযোগ এর ফলে এলাকার মৎস্যজীবী সমবায়, দুগ্ধ সমবায়, সেলফ হেলপ্ গ্রুপ, সমবায় সমিতি, আদিবাসী ল্যাম্পস সহ প্রতিটি সমবায় সংস্থা রুগ্ন ও অচল হয়ে পড়েছে।

রাইপুর শবর ল্যাম্পসের প্রতিনিধি রেখা শবর অভিযোগ করেন, তাঁদের মটগোদা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার ঝিলাখানা গ্রামে ২২টি শবর পরিবার বাস করেন। রাজ্য জুড়ে মিশন নির্মল বাংলা প্রকল্পের দেদার প্রচার চলছে৷ কিন্তু ওই গ্রামে এখনও কারোর‌ই কোন শৌচাগার তৈরি হয়নি। এই বিষয়ে সরকারি কোন তৎপরতা চোখে পড়েনি বলে তিনি দাবি করেন।

বাঁকুড়া জেলার সহ-সভাপতি প্রতীপ মুখার্জী সমবায় ক্ষেত্রে রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারের উদাসীনতাকে দায়ী করেন৷ তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের কথা ওই দুই সরকারের কেউ ভাবে না। সমবায়কে ধ্বংসের পথে নিয়ে যাওয়ার চক্রান্ত চলছে। সমবায় রক্ষার আন্দোলনে আরও বেশি বেশি মানুষকে যোগ দেওয়ার আবেদনও তিনি এদিন জানান।

উপস্থিত ৮০ জন প্রতিনিধির দাবি কনভেনশন থেকে বাঁকুড়া জেলা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্কের লুঠ হওয়া ১৫ কোটি টাকা উদ্ধার করতে হবে৷ পাশাপাশি গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচন করে সর্বত্র‌ই নির্বাচিত প্রতিনিধিদের হাতেই সমবায়গুলির পরিচালনার দায়িত্বভার তুলে দিতে সরব হন। এদিন হরিসাধন মণ্ডলকে আহ্বায়ক করে ১৭ জনকে নিয়ে সংগঠনের রাইপুর ব্লক কমিটি গঠিত হয়‌ বলে জানা গিয়েছে।