নয়াদিল্লি: ডিজিটাল কানেক্টিভিটিতে জোর দিয়ে সমুদ্রের নীচ দিয়ে ২৩০০ কিলোমিটার লম্বা অপটিক্যাল ফাইবার কেবল উদ্বোধন করতে চলেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। চেন্নাই-আন্দামান এবং পোর্টব্লেয়ার যোগাযোগ ব্যবস্থায় আরও জোর দিতে দেশের জন্য সোমবারই এই কাজ করবেন নমো। এ বিষয়ে সোমবার সকালে বার্তা দিয়েছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী।

১০ অগাস্ট এ বিষয়ে ট্যুইটে বার্তা দিয়েছেন, “আজ ১০ অগাস্ট আন্দামান-নিকোবরের ভাই-বোনদের জন্য একটি বিশেষ দিন। সকাল ১০:৩০ সাবমেরিন অপটিক্যাল ফাইবার কেবল উদ্বোধন করা হবে যা চেন্নাই-পোর্টব্লেয়ার যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপন করবে”।

ভিডিও কনফারেন্সে এই উদ্বোধন করতে চলেছেন নমো। সাবমেরিন অপটিকাল ফাইবার কেবল দ্বারা যোগাযোগ স্থাপন হবে পোর্টব্লেয়ার থেকে স্বরাজদ্বীপ (হ্যাভলক), ছোট আন্দামান, কার নিকোবর, কামরতা, গ্রেট নিকোবর, লং আইল্যান্ড, রনগত।

এই প্রজেক্টের দ্বারা মোবাইল এবং ল্যান্ডলাইন টেলিকম সার্ভিস আরও দ্রুত এবং নির্ভরযোগ্য হতে চলেছে। মূলত চেন্নাই এবং আন্দামান-নিকোবর অঞ্চল হলেও ভারতের অন্যান্য অংশেও এই সুবিধা পাওয়া যাবে। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর মাসে পোর্টব্লেয়ারে এই প্রজেক্টের শিলান্যাস হয়েছিল।

২৩০০ কিমি লম্বা সাবমেরিন অপটিক্যাল ফাইবার কেবলের শিলান্যাস হয়েছিল। যার খরচ ১২২৪ কোটি এবং সময়ের মধ্যেই এই কাজ শেষ হয়ে যাবে। মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে দ্বীপগুলির যোগাযোগ আরও ভালো হবে। ইন্টারনেট কানেকশন বর্তমান সময়ের থেকে তিন থেকে চারগুণ ভালো হতে চলেছে। এই এই প্রজেক্ট উদ্বোধনের পরে ইন্টারনেটের স্পিড ৪০০ গিগাবাইট প্রতি সেকেন্ডে হবে বলেই জানা গিয়েছে।

সাবমেরিন অপটিক্যাল ফাইবার কেবল চেন্নাই থেকে পোর্টব্লেয়ার ২০০ জিবিপিএসের দ্বিগুণ এবং ১০০ জিবিপিএসের দ্বিগুণ পোর্টব্লেয়ার এবং অন্যান্য দ্বীপের মধ্যে হতে চলেছে। ভারত সরকার এই কাজের সম্পূর্ণ খরচের দায়িত্ব নিয়েছে। যোগাযোগমন্ত্রকের নজরদারিতে এই কাজ হয়েছে।

এই কাজটি সম্পূর্ণ করেছে বিএসএনএল। অন্যদিকে টেলিকমিউনিকেশন কনসালট্যান্টস ইন্ডিয়া লিমিটেড প্রযুক্তিগত সহায়ক। এই কাজের ফলে আন্দামান-নিকোবর এলাকায় ইন্টারনেটের বিল কম হতে শুরু করবে। বর্তমানে যা বেশ খরচ সাপেক্ষ।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও