মালদহ: বার্ষিক বাজেটে একগুচ্ছ প্রকল্পের ঘোষণা ও শিলান্যাস করলেন মালদহ জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌর চন্দ্র মন্ডল৷ বিরোধী দলের অভিযোগ লোকসভা ভোটের আগে প্রকল্পগুলি হাতিয়ার করতে চাইছে শাসক দল৷ তাই এইগুলি নিয়েও রাজনীতি করছে তারা৷ আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে শাসক বনাম বিরোধী গোষ্ঠী কোন্দল৷

বৃহস্পতিবার ছিল মালদহ জেলা পরিষদের বার্ষিক বাজেট অধিবেশন। একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পাস হয়ে যায় বাজেট। বিরোধীদের অভিযোগ লোকসভা ভোটের আগে রাজনীতি করছে শাসক দল। ভোটের আগে মানুষকে নিজেদের দলে নিতে শিলান্যস করছে তারা। বাস্তবে কোন কাজ হবে না। ভোট পরবর্তী সময় দেখা যাবে কাজগুলি যে পরিস্থিতিতে ছিল সেখানেই থাকবে। মানুষ সমস্তটায় বুঝতে পারছে। এর জবাব মানুষ নিজেরাই দেবে।

মালদহ জেলা পরিষদের বিরোধী নেতা জুয়েল মুর্মু বলেন, জেলা পরিষদের যা কাজ হচ্ছে সব আইন বিরুদ্ধ। শাসকরা নিজেদের অধীনে রেখেই কাজ করছেন। আমাদের কাউকে কাজ দিচ্ছে না। ফলে আমরা এলাকাতে উন্নয়ন করতে পারছি না। এই বাজেটে শুধু শিলান্যাস হবে কাজের কাজ কিছুই হবে না।

মালদহর জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌর চন্দ্র মণ্ডল জানান, এই বছর ৪২২ কোটি টাকার বাজেট পাস হয়েছে। এরমধ্যে ৭৮ কোটি টাকার শিলান্যাস হয়েছে। দ্রুত শিলান্যাস হওয়া কাজগুলি সম্পন্ন হবে। পাশাপাশি বাজেটে যা বরাদ্দ হয়েছে তাও জেলার উন্নয়নের খাতে খরচা করা হবে৷ বিরোধীদের অভিযোগ ভিত্তিহীন। আমরা মানুষের জন্য উন্নয়ন করি তাই কাজ করছি। বিরোধীরা অনেক কিছুই বলবে তাদের কথার কোনও গুরুত্ব নেই। এদিনের বাজেটে উপস্থিত ছিলেন জেলা শাসক কৌশিক ভট্টাচার্য ও জেলা পরিষদের সদস্যরা।