নয়াদিল্লি: ২০২১ সালের শুরু থেকেই একের পর এক কোম্পানির তরফে আনা হয়েছিল একাধিক নতুন মডেলের ফোন। যা সুবিধা দিয়েছিল সাধারণ ক্রেতাদের। বিশেষ করে বিভিন্ন ধরনের বাজেটের মধ্যে এই ধরনের ফোন নিয়ে আসার ফলে ক্রেতারাও নিজদের ইচ্ছেমত ফোন কিনতে পারছেন। তবে বরাবর অল্প দামের মধ্যে উন্নত পরিষেবা নিয়ে আসার লক্ষ্য থাকে oppo ব্র্যান্ডের। আর সেই কারণে তারা খুব অল্প সময়ের মধ্যেই যথেষ্ট জনপ্রিয় হয়েছিল সাধারণের কাছে।

কিছুদিন আগেই ক্রেতাদের জন্য লঞ্চ করা হয়েছিল oppo reno 5 pro 5g। এই মুহূর্তে কার্যত গোটা বিশ্বের মোবাইল কোম্পানির নজর ৫জি প্রযুক্তির দিকে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু কোম্পানির তরফে আনা হয়েছে ৫জি প্রযুক্তি যুক্ত ফোন। আর সেই তালিকাতে যোগ হল এবারে oppo।

যদিও এর আগেও ক্রেতাদের জন্য oppo r তরফে লঞ্চ করা হয়েছিল একাধিক ফোন। তা যথেষ্ট জনপ্রিয় হয়েছিল ক্রেতাদের কাছে। কিন্তু এই ফোন লঞ্চ করাতে তা যে ক্রেতাদের কাছে যথেষ্ট আকর্ষণের বিষয় হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আর এই ৫জি প্রযুক্তি যুক্ত ফোন লঞ্চ করার ফলে বিষয় টি আরও আকর্ষণের বিষয় হবে। এছাড়াও এই ফোনে রয়েছে উন্নত একাধিক ফিচার।

এই ফোনে রয়েছে উন্নত সফটওয়্যারের সুবিধাও। থাকছে mediatek dimensity 1000+ soc এর সুবিধাও। এছাড়াও এই ফোনে রয়েছে উন্নত ক্যামেরার সুবিধা। সঙ্গে রয়েছে ৪৩৫০ mah ব্যাটারির সুবিধাও। এছাড়া থাকছে ৮ জিবি র‍্যামের সুবিধা। ১২৮ জিবি স্টোরেজের সুবিধা। এছাড়া রয়েছে 65 w দ্রুত চার্জের সুবিধা। এছাড়া দেওয়া হয়েছে android 11 ব্যবহারের সুবিধাও। এছাড়া আছে ৬.৫৫ ইঞ্চি ডিসপ্লের সুবিধাও।

ইতিমধ্যে আন্তর্জাতিক বাজারে এই ফোন যথেষ্ট সুবিধাজনক হিসেবে নাম করেছে। অল্প দামের মধ্যে একাধিক মডেল নিয়ে আসার ফলে ক্রেতারা নিজেদের বাজেট অনুসারে ফোন কিনেছে। আর তাঁর ফলে ক্রেতাদের পছন্দের তালিকাতে ওপরে উঠে এসেছে oppo.

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।