নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধিতে আম-আদমির চোখে জল৷ পেঁয়াজের লাগামছাড়া দামে নাভিশ্বাস আমজনতার৷ অনেকেই রোজকার মেনুতে রাখছেন না সাধের পেঁয়াজ৷ তরকারি রান্নাতেও পেঁয়াজের ব্যবহার অনেক কমেছে৷ চলতি বছরের মার্চের পর থেকে বেড়েই চলেছে পেঁয়াজের দাম৷ মার্চের পর থেকে এখনও পর্যন্ত দেশে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ৪০০ শতাংশেরও বেশি৷

তবে স্বস্তির খবরও মিলেছে৷ বাইরে থেকে পেঁয়াজ আমদানি করা হচ্ছে৷ আমদানির পেঁয়াজ ঢোকায় দেশের বাজারেও পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করবে বলে আশাবাদী অনেকে৷ এ বছরের সেপ্টেম্বরের পর থেকে পেঁয়াজের দাম চড়া শুরু হয়েছিল৷ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ান জানিয়েছেন, দেশে পেঁয়াজের দাম ৪০০ শতাংশেরও বেশি বেড়েছে৷ চলতি বছরের মার্চে দেশের বাজারে পেঁয়াজের গড় খুচরো মূল্য ছিল প্রতি কেজিতে ১৫.৮৭ টাকা৷ ৩ ডিসেম্বর, সেই তুলনায় তা বেড়ে হয় প্রতি কেজিতে ৮১.৯ টাকা৷

সরকারি তথ্য অনুয়ায়ী দেশের ১১৪টি শহরে এক কেজি পেঁয়াজের গড় মূল্য ১০০ টাকারও বেশি। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের পর থেকে পেঁয়াজের দাম অস্বাভাবিক হারে বাড়তে শুরু করে৷ পেঁয়াজের লাগামছাড়া দাম বৃদ্ধিতে বাড়ছে উদ্বেগ৷ ঠিক কবে পেঁয়াজের দাম ফের লাগামে আসবে তা নিয়ে সন্দিহান অনেকেই৷ মহার্ঘ্য পেঁয়াজ দোকানে রাখতেও উদ্বেগে থাকছেন দোকানমালিকরা৷ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পেঁয়াজ চুরির ঘটনা ঘটছে৷ শুনতে অবাক লাগলেও বহু জায়গায় চোর দোকানে ঢুকে টাকা ও অন্য সামগ্রী না নিয়ে পেঁয়াজের বস্তা লুঠ করেই চম্পট দিচ্ছে৷

দিল্লিতে পেঁয়াজের গড় মূল্য প্রতি কেজিতে প্রায় ৯৬ টাকা৷ মুম্বইয়ে ১০২ টাকা কিলো দরে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ৷ চেন্নাইয়ের বাজারে পেঁয়াজের বিক্রি কেজি প্রতি ১০০ টাকা দরে৷

পেঁয়াজের দামে ‘রেকর্ড’ কলকাতায়৷ কলকাতার বাজারে ১৪০ টাকা কিলো দরে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ৷ দক্ষিণের তিরুঅনন্তপুরম, কোজিকোড়, মায়াবন্দরেও দাম চড়া পেঁয়াজের৷ ওই জায়গাগুলিতে ১৬০ টাকা কিলো দরে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ৷ দক্ষিণ ভারতের তিরুপতি, এরনাকুলাম, পলককাদে ১৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ৷

এ বছর দেরিতে বর্ষা ঢোকার কারণে ফসল উত্ষপাদনে খানিকটা হলেও ধাক্কা এসেছে, এর ওপর মহারাষ্ট্র ও কর্ণাটকের মতো বড় পেঁয়াজ-উত্পাদনকারী রাজ্যে অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের ফলে ব্যাপক ফসলের ক্ষতি হয়।এসবের জেরেই এ বছর পেঁয়াজের লাগামছাড়া দামবৃদ্ধি বলে মনে করছেন অনেকে৷

পেঁয়াজের দামে লাগাম পরাতে সচেষ্ট সরকার৷ পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রচুর পরিমাণে পেঁয়াজ আমদানি করা হচ্ছে। পেঁয়াজ রফতানিতে জারি হয়েছে নিষেধাজ্ঞা৷ নজর রাখা হচ্ছে খুচরো ব্যবসায়ী ও পাইকারি ব্যবসায়ীদের উপরেও৷ পেঁয়াজ মজুত করে রাখা হচ্ছে কিনা তা দেখা হচ্ছে৷