ফাইল ছবি

রাঁচি: মাওবাদীদের সঙ্গে সংঘর্ষে শহিদ হলেন এক জওয়ান৷ তবে বিপক্ষ শিবিরের চার মাওবাদী মারা গিয়েছে৷ এছাড়া পাঁচ মাওবাদীও গুরুতর আহত হয়েছে৷ রবিবার সকালে ঝাড়খণ্ডের দুকমা জেলায় দুই পক্ষের সংঘর্ষ বাধে৷ এখনও গুলির লড়াই চলছে বলে খবর৷

দুকমার পুলিশ সুপার ওয়াই এস রমেশ জানান, পুলিশের কাছে খবর আসে শিকারিপাড়া ও রানেশ্বর পুলিশ থানার মাঝে জঙ্গলে ১৫-২০ জনের মাওবাদী দল লুকিয়ে আছে৷ সেই মতো অভিযানে নামে নিরাপত্তা বাহিনী৷ শুরু হয় দু’পক্ষের তীব্র গুলির লড়াই৷

লড়াই চলাকালীন মাওবাদীদের গুলি এসে লাগে নীরজ ছেত্রী নামে এক জওয়ানের শরীরে৷ পরে তাঁকে চপারে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানে মৃত্যু হয় তাঁর৷