স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রানীকুঠির পর এবার বালিগঞ্জ। একই কায়দায় আত্মহত্যার চেষ্টা করল এক স্কুল ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার দুপুরে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলা যায়। জানা গিয়েছে, তাকে উদ্ধার করে এদিন রাতেই বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

বালিগঞ্জের একটি নামী ইংরাজি মাধ্যম স্কুলে এই ঘটনা ঘটেছে। ওই ছাত্রী বর্তমানে দশম শ্রেণীতে পাঠরত। সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার দুপুরে হঠাৎ ক্লাস থেকে বেড়িয়ে যায় ওই ছাত্রী। তারপরই স্কুলের বাথরুমে ঢুকে ব্লেড চালাতে থাকে হাতের উপর। উদ্ধার করার পর দেখা যায়, ছাত্রীর বাঁ হাতের কব্জির উপর রয়েছে ব্লেড দিয়ে চেরার ৫ টি দাগ। ঘটনার মুহূর্তেই তাঁকে উদ্ধার করে ফেলা সম্ভব হয়। তাকে উদ্ধার করে এদিন রাতেই বাড়িতে ফিরিয়ে দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

কিন্তু কেন এই ঘটনা ঘটাল ছাত্রী, তা এখনও জানা সম্ভব হয় নি। তবে তার সঙ্গে কথা বলা হয়েছে এই ব্যাপারে। ছাত্রীটির সহপাঠিদের অনেকেরই অনুমান হোয়াটস অ্যাপের স্ট্যাটাস দেওয়ার জন্যই এমনটা ঘটিয়েছিল ছাত্রীটি। কিন্তু স্কুলের কথায় অবসাদে ভুগছিল সে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এদিন স্কুলের সপ্তম শ্রেনীর এক ছাত্রীর ব্যাগ উদ্ধার করা হয়েছে ৭ টি ব্লেড!