ডায়মন্ড হারবার: অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহে বিশেষ সুবিধা দিতে উদ্যোগী হল ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলা প্রশাসন। বাড়ি বসে whatsapp-এ পাঠানো যাবে বিক্রেতার নাম ঠিকানা ও পরিচয় পত্র। তথ্য খতিয়ে দেখেই হোয়াটসঅ্যাপে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির কাছে চলে যাবে ই পাস। রাজ্যের যে কোনও প্রান্তে এই ইপাস থাকলে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ে যাওয়া যাবে। লকডাউন চলাকালীন এই পাস দেখালে পড়তে হবে না কোনরকম সমস্যায়। সাংবাদিক বৈঠক করে বিশেষ এই পরিষেবা চালুর কথা জানিয়েছেন ডায়মন্ডহারবারের পুলিশ সুপার ভোলানাথ পান্ডে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রস্তাব অনুযায়ী অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহে পরিষেবা চালু করল ডায়মন্ড হারবার পুলিশ। জেলা বিক্রেতারা তাদের নাম ঠিকানা পরিচয় পত্র পাঠাতে পারবেন বিশেষ একটি নম্বরে। তাঁর ঠিকানা খতিয়ে দেখবে ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলা প্রশাসন। ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলার আওতায় ১১ টি থানার আইসি এই প্রক্রিয়া তদারকি করবেন। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির দেওয়া তথ্য খতিয়ে দেখার পরেই whatsapp-এ পৌঁছে যাবে ই পাস।

বিশেষ এই ই পাস দেখিয়ে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যেতে গেলে পড়তে হবে না কোনরকম পুলিশি ধরপাকড়ের মধ্যে। রাজ্যের মধ্যে এই প্রথম বিশেষ এই পরিষেবা চালু করল ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলা।

শনিবার সাংবাদিক বৈঠকে ডায়মন্ড হারবার পুলিশ সুপার ভোলানাথ পান্ডে জানান, বিশেষ এই পরিষেবার সুযোগ ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলার আওতায় থাকা যে কোনও বিক্রেতারা নিতে পারবেন। খুবই ইউজার ফ্রেন্ডলি এই প্রক্রিয়া। শুধুমাত্র মোবাইলে ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেই হবে। সোশ্যাল ডিসটেন্সসিংয়ের সবরকম নির্দেশ মেনে এই পরিষেবা চালু করা হল। হোয়াটসঅ্যাপে তথ্য পাঠালে ভিড় এড়ানো যাবে। অথচ থানায় না গিয়েও বাড়ি বসে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য বিক্রেতারা এই সুবিধা পেয়ে যাবেন।