স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: বন্যপ্রাণী শিকার করে তা ট্রেনে চাপিয়ে বাইরে পাচারের সময় হাতেনাতে ধরা পড়লেন এক চোরাশিকারি। মৃতের নাম চুরকু যোগী। বাড়ি বিহারের কিশানগঞ্জ এলাকার রামপুর চেকপোষ্টে। তার কাছ থেকে বিরল প্রজাতির দুটি মৃত বন বিড়াল ও সেই সঙ্গে জ্যান্ত দুইটি গোসাপ উদ্ধার করেছে আরপিএফ। উদ্ধার হওয়া বন্যপ্রাণীসহ চোরাশিকারি কে বনদফতরের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

বনদফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার বালুরঘাট-শিলিগুড়ি ইন্টারসিটি এক্সপ্রেসে চেপে শিলিগুড়ি যাচ্ছিলেন এক ব্যক্তি। তাকে দেখে সন্দেহ হয় আরপিএফ জওয়ানদের। তার সঙ্গে থাকা বস্তায় তল্লাশি চালালে ভিতর থেকে দুটি মৃত বনবিড়াল এবং সেইসঙ্গে জ্যান্ত দুটি গোসাপ উদ্ধার হয়। জেরায় সে স্বীকার করেছে যে, বালুরঘাটের বাউল এলাকা থেকে সেগুলি সংগ্রহ করেছে। বাইরে পাচারের উদ্দেশ্যে সেগুলি নিয়ে যাচ্ছিল। বুনিয়াদপুর স্টেশনে তাঁকে নামিয়ে বনদফতরের হাতে তুলে দেয় আরপিএফ।

বনদফতরের বালুরঘাটের রেঞ্জার আব্দুল রেজ্জাক জানিয়েছেন, বিহারের বাসিন্দা চুরকু যোগীর কাছ থেকে দুটি মৃত বনবিড়াল এবং সেইসঙ্গে দুটি জ্যান্ত গোসাপ পাওয়া গিয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, বাইরে পাচারের উদ্দেশ্যে চোরাপথে সেগুলি নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। শনিবার তাকে বালুরঘাট আদালতে তোলা হবে।