তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সোনার দোকানে বড়সড় ডাকাতির ছক বানচাল করল বাঁকুড়া সদর থানার পুলিশ। একই সঙ্গে আগ্নেয়াস্ত্র সহ এক দুষ্কৃতীকে ধরে ফেলে পুলিশ। শুক্রবার ভোরে ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়া সদর থানার মাকুড়গ্রামে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, এদিন ভোরে বাঁকুড়া সদর থানার টহলদারি পুলিশ ভ্যানের কাছে গোপন সূত্রে খবর আসে, মাকুড়গ্রামে একটি সোনার দোকানে ডাকাতির উদ্দেশ্যে কয়েক জন দুষ্কৃতী জড়ো হয়েছে। এমনকি দোকানের শার্টার ভেঙে ভেতরে ঢুকে ভল্ট ভেঙে গয়না সহ নগদ টাকা চুরির চেষ্টা করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে, ডাকাত দলের সদস্যরা প্রথম বন্দুক নিয়ে তেড়ে আসে। পুলিশ কর্মীরা তখন ডাকাত দলটিকে ধাওয়া করেন।

পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে ডাকাত দলটির বাকিরা পালিয়ে গেলেও একজনকে হাতে নাতে ধরে ফেলেন উপস্থিত পুলিশ কর্মীরা। ধৃতের কাছ থেকে একটি ওয়ান শার্টার বন্দুক ও ৯ রাউণ্ড কার্তুজ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ধৃতকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদের পাশাপাশি বাকিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশের তৎপরতায় ডাকাতির ছক বানচাল হলেও যথেষ্ট আতঙ্কিত ওই এলাকার বাসিন্দা থেকে ব্যবসায়ী সকলেই। দোকানের কর্মী বৈদ্যনাথ ব্রহ্মচারী বলেন, খবর পেয়ে দোকানে এসে দেখি শার্টার ভাঙা অবস্থায় রয়েছে। তবে দোকানের কোনও কিছু খোয়া যায়নি বলেই তিনি জানিয়েছেন। সিদ্ধার্থ সিংহ নামে এক স্থানীয় বাসিন্দা জানান, পুলিশের তৎপরতায় দোকান থেকে কোনও কিছু নিয়ে যেতে পারেনি ডাকাত দলটি। এই এলাকায় বেশ কয়েকটি সোনার গয়নার দোকান রয়েছে। সেই কারণে রাতেও পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করার দাবি জানিয়েছেন তিনি।