মুম্বই: হাম দো, হামারে পঁচ্চিশ। এভাবেই মুসলিম সম্প্রদায়ের একাংশকে বিঁধল শিবসেনা। শনিবার দলীয় মুখপত্র সামনায় প্রকাশিত এক সম্পাদকীয়তে শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত বলেন, মুসলিমরা জনসংখ্যা ক্রমশই বাড়াচ্ছে। তারা পরিবার পরিকল্পনার মানেই বোঝে না।

উল্লেখ্য স্বাধীনতা দিবসে লালকেল্লায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন যারা পরিবার পরিকল্পনা করেন, তাঁরাই প্রকৃত দেশভক্ত। সেই প্রসঙ্গ তুলে এদিন রাউত বলেন মুসলিম সম্প্রদায়ের একাংশ দেশভক্তই নয়। কারণ তারা পরিবার পরিকল্পনা করতে জানে না, তার মানেও বোঝেনা। পরিবার পরিকল্পনা প্রসঙ্গে নরেন্দ্র মোদীকে সমর্থন করে সঞ্জয় রাউত বলেন, একদিকে কেন্দ্রের সরকার দেশের উন্নয়নের জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে, অন্যদিকে মুসলিমদের একাংশ দেশদ্রোহীতা করে জনসংখ্যা বাড়িয়েই চলেছে।

মুসলিম সম্প্রদায়কে কটাক্ষ করে সঞ্জয় রাউতের মন্তব্য গোঁড়া ও কট্টর মুসলিমরাই এই ধরণের কাজ করে। তারা একেবারেই নিজেদের মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে পারে না। তারা দেশভক্ত নয়, তাই তাদের লক্ষ্য হাম দো, হামারে পঁচ্চিশ।

বৃহস্পতিবার জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়ে মোদী বলেন দম্পতিদের একটি সন্তান সার্বিক বিকাশ ঘটাবে দেশের। পরিবার পরিকল্পনা নিয়ে সচেতনতার প্রয়োজন। সেই তথ্য তুলে ধরে শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউতের মন্তব্য, দেশে জনবিস্ফোরণের জন্য দায়ী মুসলিমদের একাংশ। তারা বোঝেই না একটি সন্তান থাকলে, তার সর্বাঙ্গীণ বিকাশ সম্ভব। কিন্তু একাধিক সন্তান আর্থিক দুরবস্থা ছাড়া আর কিছুই দেয়না।

এদিন শিবসেনার প্রতিষ্ঠাতা বাল ঠাকরের উদ্ধৃতিও তুলে ধরেন তিনি। সঞ্জয় রাউত বলেন শিবসেনাও পরিবার পরিকল্পনার পক্ষে বরাবর। বাল ঠাকরে সারা জীবন পরিবার পরিকল্পনার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে এসেছেন। এক্ষেত্রে বিজেপির ভাবনাচিন্তার সঙ্গে মিল রয়েছে শিবসেনার।

সামনায় লেখা সম্পাদকীয়তে সঞ্জয় বলেছেন পরিবার পরিকল্পনার পাশাপাশি, আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রসঙ্গ তুলে ধরেছেন মোদী। তা হল এক দেশ-এক নির্বাচন। এই পরিকল্পনা সফল হলে দেশের উন্নয়নে আরও কয়েক ধাপ এগিয়ে যাওয়া যাবে।