ছবি: শশী ঘোষ

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বলিউডের পর এবার কাশ্মীর ইস্যুতে মুখ খুলল টলিউড। টলিপাড়ার প্রখ্যাত পরিচালক কমলেশ্বর মুখার্জী কাশ্মীর নিয়ে সরব হলেন। এর আগেও বিভিন্ন ঘটনার প্রেক্ষিতে মুখ খুলতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। সোমবার কাশ্মীর থেকে ৩৭০ এবং ৩৫এ ধারা তুলে নিল মোদী সরকার। ফলে এবার বাকি রাজ্যগুলির মতোই কেন্দ্রীয় শাসিত অঞ্চলে পরিণত হল কাশ্মীর। ঘটনার জেরে ইতিমধ্যেই সবর হতে দেখা গিয়েছে বলিউডের অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রীকে।

অনুপম খের, পরেশ রাওয়াল, দিয়া মির্জা প্রমুখ অনেকেই কাশ্মীর নিয়ে নিজেদের বক্তব্য ট্যুইট করেছেন। অনেকেই মনে করছেন, কাশ্মীরে এবার শান্তি ফিরবে। বছরের বেশির ভাগ সময়েই উত্যপ্ত থাকে এই উপত্যকা। গুলি ও বোমার শব্দ শোনা এই অঞ্চলের মানুষদের কাছে নিত্য নৈমিত্যিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই কারণে বিগত কয়েক বছরে ভূস্বস্বর্গের পর্যটন শিল্প ব্যাপক ভাবে মার খেয়েছে।

সেই কাশ্মীর এবার কেন্দ্রশাসনের আওতায় এল। সম্প্রতিক সময়ে কাশ্মীর সমস্যা বেশ জটিল আকার ধারণ করেছিল। ৩৭০ এবং ৩৫এ ধারা কাশ্মীরে আর কার্যকর হবে না। আর পাঁচটা রাজ্যেই মতোই সমান সুবিধে পাবে কাশ্মীর। এবার থেকে আর বিশেষ সুযোগ-সুবিধের অংশীদার থাকল না ভূস্বর্গ।

এই ঘটনার জেরে নিজের ফেসবুক দেওয়ালে কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায় লেখেন, “বৃহত্তর ভারতবাসী আগুন নিয়ে খেলছিলেন। এবার হাত পুড়লো।” ঘটনাটি যে কমলেশ্বরকে খুশি করেনি, তা এই পোস্ট পড়েই বোঝা যায়। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এবার থেকে কাশ্মীরের ভূমিপুত্ররা বঞ্চিত হবেন নিজেদের অধিকার থেকে। কারণ, কাশ্মীর থেকে ৩৭০ এবং ৩৫এ ধারা উঠে যাওয়ায় সেখানে এবার থাবা বসাবে কর্পোরেট রাজ। গড়ে উঠবে শপিং মল, ফ্ল্যাট কালচার ইত্যাদি। কমলেশ্বরের এই পোস্টে যে, সেই ইঙ্গিতই রয়েছে– অভিজ্ঞ মহলের তা বুঝতে অসুবিধে হয়নি।