স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ফের পথে নামতে চলেছেন বিদ্বজনেরা। রাজ্যে ভোট-পরবর্তী হিংসাত্বক পরিস্থিতি এবং উত্তরোত্তর সমস্যা বৃদ্ধির কারণেই তাঁদের একজোট হওয়া। এবার শাসকদলের বিরুদ্ধে তাঁরা বড় ধরনের আন্দোলন গড়ে তুলতে চলেছেন। কিন্তু বিদ্বজনদের এই আন্দোলনে নেই কোনও রাজনৈতিক রং। আন্দোলনকারীদের শীর্ষে আছেন কবি শঙ্খ ঘোষ। এছাড়াও থাকছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, বিভাস চক্রবর্তী, রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্ত, অপর্ণা সেন, চন্দন সেন, নবনীতা দেব সেন সহ আরও অনেকে। রবীন্দ্রসদনে তাঁদের প্রথম সভা আগামী ১৮ জুন।

এর আগেও রাজ্যে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির জেরে পথে নেমেছেন বাংলার বুদ্ধিজীবীরা। সিঙ্গুর-নন্দীগ্রাম পর্বে বুদ্ধিজীবীদের আন্দোলন ও মহামিছিলের কথা সকলেরই জানা। তারপর কেটে গিয়েছে বহুবছর। সেই সময়ের ‘পরিবর্তনপন্থী’ মধ্যে একাংশ এখন সরকার ঘনিষ্ঠ, পেয়েছেন নানা সরকারি পদ। অন্য অংশ মুখ খুলেছেন জুনিয়ার ডাক্তারদের আন্দোলন নিয়ে এবং তাঁদের প্রতি মুখ্যমন্ত্রীর অশোভন আচরণের বিরুদ্ধে। এবার সামনে আসছে চলেছে তাঁদের মহাআন্দোলন।

সমাজের বিশিষ্টজনেদের এই একত্র হওয়ায় অস্বস্তি বাড়ল শাসক দলের। এমনিতেই রাজ্যে চলছে অরাজগতা। চিকিৎসকদের ধর্মঘটে রাজ্যে স্বাস্থ্য পরিষেবা বিঘ্নিত। এমন পরিস্থিতিতে বুদ্ধিজীবীদের ঐক্যবধ্য হওয়াকে রাজ্যের সামগ্রিক উন্নতির জন্য শুভ বলে মনে করছেন অনেকে। আগামী দিনে তাঁদের আন্দোলন সাধারণ মানুষের জন্য কতটা শুভকর সেটাই এখন দেখার বিষয়।