জো’বার্গ: বিশ্বজুড়ে থাবা বসিয়েছে করোনাভাইরাস৷ মারণ এই ভাইরাস ব্যপক প্রভাব ফেলেছে ইউরোপে। চিনে প্রথম দেখা গেলেও করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন ইতালিতে৷ মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন একাধিক ফুটবলার থেকে কোচ, এমনকী সাপোর্ট স্টাফরাও। এবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন অলিম্পিকে সোনাজয়ী দক্ষিণ আফ্রিকার সাঁতারু ক্যামেরন ফান ডেন বার্গ।

২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোক দেশকে সোনা এনে দেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই সাঁতারু৷ ৩১ বছর বয়সি দক্ষি সাঁতারু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন অলিম্পিকে সোনাজয়ী এই সাঁতারু৷ কিন্তু ১৪ দিন ধরে কোয়ারেন্টাইন থাকার ভয়াবহ অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন ফ্যান ডার বার্গ৷ এখন বেশ দুর্বল তিনি। করোনা, তাঁর দেখা ‘মারাত্মক ক্ষতিকর’ ভাইরাস৷ এমনটাই দাবি করছেন ফ্যান ডার বার্গ৷

২০১৮ সালে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জেতার পর অবসর নেন অলিম্পিকে সোনাজয়ী এই সাঁতারু। ক্যামেরুন নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, ‘১৪ দিন ধরে COVID 19- আক্রান্ত। আমার বয়স কম, আমার ফুসফুস এবং হৃদযন্ত্র অনেক মজবুত৷ তারপরেও এই ভাইরাস আমার দেখা সবচেয়ে মারাত্মক ভাইরাস।’

তিনি আরও লেখেন, ‘এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে শরীরে ব্যাপক প্রভাব পড়ে। যদি কোনও অ্যাথলিট এই ভাইরাসে আক্রান্ত হন তাহলে তার শারীরিক ক্ষমতা হ্রাস পায়। এমনকি এতদিন ধরে পরিশ্রম করে তিনি যে শারীরিক সক্ষমতা গড়ে তুলেছিলেন, সেটাও নষ্ট হতে বেশি সময় লাগে না।’ ২০১০ লন্ডন অলিম্পিকে ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে সোনা জেতা ছাড়াও ২০১৬ রিও অলিম্পিকে রুপো জিতেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই সাঁতারু৷