স্টাফ রিপোর্টার, বনগাঁ: আবারও খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে কটাক্ষ করলেন বনগাঁর বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুর। শুক্রবার নাম না করে তিনি বললেন, ‘বুড়ো ঘোড়া আর চলে না, পুষতে খরচও বেশি লাগে’।

এদিন জ্যোতিপ্রিয়র গড়ে দাঁড়িয়ে প্রায় ১৫০০ জন তৃণমূল কর্মীর হাতে বিজেপির পতাকা তুলে দেন সাংসদ শান্তনু ঠাকুর। সেখানে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ইস্যুতে তৃণমূলকে তোপ দেগে তিনি বলেন, “সংখ্যালঘুদের প্রকৃত উন্নয়ন তৃণমূল করছে না। শুধু মসজিদ করলেই উন্নয়ন হয় না। মুসলিম অধ্যুষ্যিত এলাকায় গেলেই বোঝা যায় উন্নয়নের অবস্থা।”

বিজেপি সাংসদের কথায়, “পূর্ববঙ্গ থেকে আসা মানুষের অধিকার নাগরিকত্ব। দেশভাগের দ্বিজাতিতত্ত্ব অনুযায়ী এই অধিকার রয়েছে। কংগ্রেস, সিপিএম এটা ভুলে গিয়েছিল। আর তৃণমূলের অতীত সম্পর্কে কোনও জ্ঞানই নেই। সংবিধান কী ওরা জানে না। ফলে প্রতিবাদ করতে হয় তাই করে।”

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেছিলেন যে, আগামী ৩১ শে ডিসেম্বরের মধ্যে উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় বিজেপির হাতে থাকা সব কটি গ্রাম পঞ্চায়েতই তৃণমূল জোড় করে দখল করবে না। বিজেপির সব সদস্যরাই স্বেচ্ছায় তূণমূলে যোগ দেবেন।

তাঁর দাবি ছিল, বিজেপির ফেক নিউজ ছড়ানোয় রীতিমতো বীতশ্রদ্ধ দলের কর্মীরা। এদিন তৃণমূলের ঘর ভেঙে পাল্টা জ্যোতিপ্রিয়কে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন শান্তনু ঠাকুর।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV