মালদহ: আট বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে ৫৫ বছরের এক প্রৌঢ়কে গ্রেফতার করল মালদহ থানার পুলিশ৷ মঙ্গলবার রাতেই ওই প্রৌঢ়কে পুলিশ উত্তেজিত জনতার হাত থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়৷ এরপর বুধবার নাবালিকার মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়৷ বৃহস্পতিবার তাকে জেলা আদালতে তোলা হবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে৷

অভিযুক্তের নাম ভূদেব মণ্ডল৷ বাড়ি পুরাতন মালদহর বাচামারি এলাকায়৷ অভিযোগ, পয়সা দেওয়ার লোভ দেখিয়ে ভূদেব মণ্ডল ওই এলাকারই আট বছরের নাবালিকাকে প্রতিদিন দুপুরে ডেকে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করত৷ এই কুকাজ সে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু করেছিল৷ ওই নাবালিকা তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী৷

প্রতীকী ছবি

আরও অভিযোগ, ধর্ষণের কথা কাউকে বললে ভূদেব তাকে মেরে ফেলার হুমকি দিত৷ প্রাণের ভয়ে নাবালিকা সেকথা কাউকে বলেনি৷ কিন্তু মঙ্গলবার দুপুরে ভূদেব ফের ওই নাবালিকাকে বাড়ি থেকে ডাকলে বাড়ির লোকের সন্দেহ হয়৷ বাড়ির লোকজন নাবালিকাকে জেরা করলে সে সব কথা খুলে বলে দেয়৷

এরপরেই বাড়ির লোকজন ভূদেবকে ধরে ফেলেন৷ সব কথা শুনে এলাকাবাসীরাও তাকে আটক করে জেরা শুরু করে৷ প্রথমে সে নিজের দোষ স্বীকার না করেনি৷ পরে মাঝরাতে সে সব কিছু স্বীকার করে নেয়৷ এরপরেই স্থানীয়রা খবর দেন মালদহ থানায়৷ পুলিশ গিয়ে উত্তেজিত জনতার হাত থেকে ভূদেব মণ্ডলকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়৷

এরপর বুধবার ওই নাবালিকার মা ভূদেবের বিরুদ্ধে তাঁর মেয়েকে ধর্ষণের লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন৷ অভিযোগের ভিত্তিতে ভূদেবকে গ্রেফতার করেছে মালদহ থানার পুলিশ৷ পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার তাকে জেলা আদালতে পেশ করা হবে৷