নয়াদিল্লি: দৈনন্দিন যাত্রাপথে অনেকেরই সঙ্গী ওলা ও উবর অ্যাপ৷ দিনের পর দিন মানুষের প্রয়োজন হয়ে উঠেছে অ্যাপগুলি৷ আর, সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েই ক্রমাগত বেড়েছে ভাড়া৷ গত দুই বছরে ওলা, উবরের ভাড়া বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ২৫ শতাংশে বেশি৷ সংবাদ মাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরেই ভাড়া বেড়েছে ১৫ শতাংশ৷ শুধু তাই নয়, ২০১৭ তে ভাড়া বৃদ্ধি পেয়েছে ১০ শতাংশ৷

তবে, ভাড়া বৃদ্ধির হার সব শহরে একইরকম নয়৷ সমস্ত শহরগুলির গড় ভাড়া বৃ্দ্ধির পরিমান ছিল ২৫ শতাংশের বেশি৷ তথ্য জানাচ্ছে, অন্যান্য শহরের তুলনায় বেঙ্গালুরুর বাসিন্দারা অনেক বেশি ওলা, উবর ভাড়া দিয়েছেন৷ গত বছরে ওলা, উবরের একটি রাইডের জন্য যাত্রীদের দিতে হত ১৯০ টাকা (অ্যাভারেজ কস্ট)৷ অন্যদিকে, চলতি বছরে সেই একই ভাড়ার পরিমান বেড়েছে৷ এখন একই যাত্রাপথের জন্য যাত্রীদের দিতে হয় ২২০ টাকা৷

সংবাদ মাধ্যমের তথ্য জানাচ্ছে, গত বছরে ক্যাব মালিকেরা ক্যাব চালকদের ভাতা ৩০ শতাংশ কমিয়ে এনেছে৷ এই কারণের জন্যই দিল্লি এবং মুম্বইয়ের ক্যাব চালকেরা ধর্মঘট করেন৷ গড়ে একজন ড্রাইভার মাসিক বেতন পেতেন ৩০,০০০ টাকা৷ যেটি এখন কমে দাঁড়িয়েছে ২০,০০০ টাকায়৷ অন্যদিকে, পেট্রলের দাম বৃ্দ্ধিও চালকদের আয়ে প্রভাব ফেলেছে৷ দুই বছর আগে এই ভাতা ছিল বুকিং মূল্যের ৬০ শতাংশ পর্যন্ত৷ গত বছরে যেটি নেমে আসে ১৮-২০ শতাংশে৷ চলতি বছরে এই হার ১৪-১৫ শতাংশ৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I