নয়াদিল্লি: পৃথিবীর ১৫ উষ্ণতম শহরের মধ্যে দশটি ভারতে আর বাকি পাঁচটি পাকিস্তানে, এমনটাই জানিয়েছে আবহাওয়া মনিটরিং ওয়েবসাইট এল ডোরাডো।

রাজস্থানের রাজধানী জয়পুরের ২০ কিলোমিটার উত্তরে চুরু, দেশের সবচেয়ে বেশি উষ্ণতা অর্থাৎ ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছুঁয়েছে মঙ্গলবার।

থর মরুভূমির প্রবেশদ্বার বলেই পরিচিত চুরু যার উষ্ণতা পাকিস্তানের জাকোবাবাদের সমান, মঙ্গলবার পৃথিবীর সবচেয়ে উষ্ণ জায়গা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে।

এছাড়া রাজস্থানের বিকানির, গঙ্গানগর এবং পিলানি সেই তিন শহরও সেই তালিকায় রয়েছে। উত্তরপ্রদেশ থেকে দুটি শহর এবং মহারাষ্ট্রের দুটি শহর এরমধ্যে রয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের বান্দা এবং হরিয়ানার হিসার ৪৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা নিয়ে রেকর্ড গড়েছে।

উষ্ণতম শহরের তালিকায় রয়েছে নয়াদিল্লি ৪৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বিকানির ৪৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, গঙ্গানগর ৪৭ ডিগ্রি, ঝাঁসি ৪৭ ডিগ্রি, পিলানি ৪৬.৯ ডিগ্রি, নাগপুর সোনেগাও ৪৬.৮ ডিগ্রি এবং আকোলা ৪৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শেষ ১০ বছরে মে মাসে ছুরু উষ্ণতার পারদের মাত্রায় দ্বিতীয় জায়গা নিয়েছে। ২০১৬ সালের ১৯ মে শহরের তাপমাত্রা উঠেছিল ৫০.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা এ যাবৎ সর্বোচ্চ। ২২ মে থেকে তীব্র তাপ প্রবাহের সাক্ষী থেকেছে চুরু।

শহরের তাপমাত্রা ঘোরাফেরা করছে ৪৬.৬ থেকে ৪৭.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। রাজস্থানের জয়সলমীর ও কোটা শহরের তাপমাত্রাও ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরেই থাকছে।

প্রসঙ্গত, মৌসম ভবন চলতি বছরে তাপপ্রবাহের পূর্বাভাস দিয়েছে। বিগত কয়েকদিন কীভাবে বেড়েছে তাপমাত্রার দিকে নজর রাখলেই তা স্পষ্ট হয়ে যাবে।

অন্যদিকে, পশ্চিমি ঝঞ্ঝার কারণে ঝড় হতে পারে দিল্লিতে। ২৮ মে হতে পারে সেই ঝড়। ৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে বইতে পারে ধুলোঝড়।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV