ভুবনেশ্বর: করোনার (Corona Virus) সেকেন্ড ওয়েভের গ্রাসে দেশ। রাজ্যে-রাজ্যে ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। দেশের একাধিক রাজ্যের পাশাপাশি করোনার সংক্রমণ বিপজ্জনক রূপ নিয়েছে ওডিশাতেও (Odisha)। রাজ্যের সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে লকডাউনের (Lockdown) মেয়াদ আরও বাড়নো হল ওডিশায়। আগামী ১ জুন বিকেল ৫ টা পর্যন্ত রাজ্যে লকডাউন জারি থাকবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

আগে গত ৫ মে ১৪ দিনের লকডাউন জারি করেছিল ওডিশা সরকার। করোনার সংক্রমণ রাজ্যে কমছে না দেখে ফের লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে মঙ্গলবারই। এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে রাজ্যের মুখ্যসচিব লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

ওডিশাতেও করোনার সংক্রমণ বিপজ্জনক আকার নিতে শুরু করেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন হয়েছেন ১০,৩২১ জন। একদিনে ওডিশায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২২ জনের। ওডিশায় করোনায় মোট সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে ৬,৩৩,৩০২ জন। পাশাপাশি। রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২,৩৫৭। প্রতিদিন রাজ্যের জেলায়-জেলায় হাজার-হাজার মানুষ নতুন করে সংক্রমিত হচ্ছেন। সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে (Hospitals) করোনা রোগীদের ভিড় বাড়ছে। একাধিক হাসপাতালে শয্যার (Bed) আকাল।

রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় গত ৫ মে ১৪ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। সেই লকডাউনের মেয়াদ ফুরনোর আগেই তা আবার নতুন করে বাড়ানো হল। আপাতত ফের আগামী ১ জুন বিকেল পর্যন্ত রাজ্যে জারি থাকবে লকডাউন। ওডিশা সরকারের তরফে দেওয়া নতুন একটি নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, লকডাউন চলাকালীন জরুরি পরিষেবা চালু থাকবে।

রাজ্যে বাজার ও মুদির দোকান খোলা থাকবে সকাল ৭টা থেকে সকাল ১১টা পর্যন্ত। সামাজিক অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ ৫০ জন কোভিড প্রোটোকল মেনে হাজির থাকতে পারবেন। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজ্যবাসীকে প্রশাসনের সঙ্গে সহযোগিতা করার আবেদন জানানো হয়েছে। কোভিড বিধি (Covid Protocols) ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

এদিকে দেশে করেনাার গ্রাফ নিম্নমুখী। সোমবারের পর মঙ্গলবারেও করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লক্ষের কম। সুস্থতার সংখ্যা পেরলো ৪ লক্ষ। করোনার এই নিম্নমুখী সংক্রমণের হার আশা জাগাচ্ছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় গোটা দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২ লক্ষ ৬৩ হাজার ৫৩৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যা অবশ্য বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৪ হাজার ৩২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.