ব্রিস্টল: আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে কোনও রকমে জয় পেলেও চলতি আইসিসি বিশ্বকাপে স্বস্তিতে নেই শ্রীলঙ্কা৷ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে একতরফা হার ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়া ম্যাচের সুবাদে তারা ৩ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে৷ স্বাবাবিকভাবেই শ্রীলঙ্কার সেমিফাইনালের স্বপ্ন শুরুতেই বড়সড় ধাক্কা খেয়েছে৷

যদিও এই মুহূর্তে সিংহলিরা বেশি চিন্তিত তাদের ব্যাটিং বিপর্যয় নিয়ে৷ দু’টি ম্যাচের একটিতেও বড় রানের ইনিংস গড়তে পারেনি শ্রীলঙ্কা৷ বোলাররা লড়াইয়ে রেখেছিল দ্বীপরাষ্ট্রকে৷ এবার সেই বোলিং লাইনআপেই মোক্ষম আঘাত লাগল শ্রীলঙ্কার৷ চোটের জন্য বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের পরের ম্যাচে খেলতে পারবেন না পেসার নুয়ান প্রদীপ৷

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ৩১ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচের সেরা হওয়া প্রদীপ ব্রিস্টলের নেটে অনুশীলনের সময় হাতে চোট পান৷ তাঁর ডান হাতের কণিষ্ঠ আঙুলের হাড় সরে যায়৷ কেটে রক্তপাতও হয়৷ তড়িঘড়ি তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ ডাক্তাররা সরে যাওয়া হাড় যথাস্থানে ফিরিয়ে আনেন৷ সেলাইও হয় আঙুলে৷ ফলে প্রাথমিকভাবে অন্তত এক সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে গেলেন নুয়ান৷ যে কারণে মঙ্গলবার ব্রিটস্টে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে খেলতে পারবেন না তিনি৷

নেটে কুশল পেরেরাকে বল করছিলেন প্রদীপ৷ পেরেরার জোরালো শট থেকে মুখ বাঁচাতে বলে হাত লাগিয়ে বসেন তিনি৷ মুখ বাঁচানো গেলেও চোট লেগে যায় আঙুলে৷ শ্রীলঙ্কান টিম ম্যানেজমেন্টের তরফে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ‘হাসপাতালে নুয়ানের চিকিঞসা হয়৷ ডাক্তাররা সরে যাওয়া হাড় যথা স্থানে ফিরিয়েছেন৷ কেটে যাওয়া আঙুলে সেলাই হয়েছে৷ সঙ্গে অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া হয়েছে তাকে৷ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ম্যাচে অংশ নেবে না প্রদীপ৷ সেরে ওঠার জন্য ওর এক সপ্তাহ সময় দরকার৷’

চোটের গুরুত্ব অনুধাবন করলে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রদীপের সেরা ওঠার সম্ভাবনা কম৷ শেষমেশ টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গেল তাঁর পরিবর্ত হিসাবে দলে ঢোকার জন্য তৈরি রয়েছেন কাসুন রজিথা৷ তিনি স্ট্যান্ড-বাই ক্রিকেটার হিসাবে ইতিমধ্যেই স্কোয়াডের সঙ্গে ইংল্যান্ডে রয়েছেন৷ সামনের কয়েকদিনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হলে কাসুনকে চেয়ে টুর্নামেন্ট টেকনিক্যাল কমিটির কাছে আবেদন করতে পারে শ্রীলঙ্কা৷

একা নুয়ানকে নিয়েই নয়, শ্রীলঙ্কা শিবির চিন্তিত লাহিরু থিরিমানেকে নিয়েও৷ ব্রিস্টলের নেটে ব্যাটিং করার সময় হাঁটু নিয়ে রীতিমতো অস্বস্তিতে দেখায় থিরিমানেকে৷ যদিও তাঁকে নিয়ে শ্রীলঙ্কা টিম ম্যানেজমেন্ট আলাদা ককে কোনও বিজ্ঞপ্তি জারি করেনি৷ তবে তাঁর ম্যাচ ফিটনেস নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে নিশ্চিত৷