নিউজ ডেস্ক: ফের নেট দুনিয়ায় ট্রোলড নুসরত জাহান। সিঁদুর পরে সংসদে গিয়েই নেটিজেনদের তামাশার উদাহরণ হয়েছেন তিনি। নেট দুনিয়ায় মিলছে তেমন তথ্যই। তার চেয়েও বড় কথা, এই নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য দিতে শোনা গেল তৃণমূল সাংসদদেরই! তাদের বক্তব্য, হিন্দু ছেলেকে বিয়ে করা মানে এই নয় যে নিজের মুসলিম স্বত্তা বিসর্জন দিতে হবে!

১৯ জুন বিয়ে সেরেছেন বসিরহাটের নব নির্বাচিত সাংসদ। ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সঙ্গে বিয়ে করেছেন টলিস্টার। তুরস্কে বসেছিল তাদের বিয়ের আসর। তারপরেই সংসদে শপথ নিতে হাজির হন তিনি। এদিন বাঙালি বধূর বেশে শাড়ি-শাঁখা-সিঁদুর পরে হাজির হন তিনি। আর এই সাজেই নেটিজেনদের তামাশার উদাহরণ হয়েছেন নব পরিনীতা।

এর আগে এক সাংসদকে ইসলাম বিরোধী বলে অভিহিত করার পর শিরোনামে এসেছিলেন নুসরত। বিয়ের পর সংসদে শপথ নেওয়ার বিষয়েও প্রশ্নের মুখে পরতে হয়েছিল নুসরতকে। সংসদে যাওয়ার প্রথম দিনেই ট্রোলড হয়েছিলেন তিনি। সংসদে পশ্চিমী পোষাক পরে ছবি তোলা নিয়ে অন্য সাংসদ মিমির সঙ্গে শেষবার ট্রোলড হয়েছিলেন তিনি। এবার হিন্দু নারীর সাজে তার সংসদে প্রবেশ আলাদা মাত্রায় নজর কেড়েছে নেটিজেনদের।

নুসরত অবশ্য এই বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিয়ে জানিয়েছেন, তার নজরে আসার জন্যই কিছু মানুষ এসব করছেন।
“আমরা এদের এড়িয়ে যাওয়া ছাড়া আর কি করতে পারি বলুন?” তিনি আরও বলেন, একজন হিন্দুকে বিয়ে করা মানে এই নয় যে আমি আমার মুসলিম স্বত্তা বিসর্জন দিয়ে দিয়েছি। তিনি বলেন, মুসলিম পরিবারে জন্মেছেন আর সেই আভিজাত্যই বজায় রেখে যাবেন আজীবন। কিন্তু অন্য ধর্মকে সম্মান করাতে দোষের কিছু নেই!