কলকাতা- লোকনাথ বাবার জন্ম তিথিতে সম্প্রীতির বার্তা দিলেন অভিনেত্রী তথা বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান। দুর্গাপুজো অথবা রথযাত্রা ইত্যাদি অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে এর আগে বহুবার কট্টরপন্থীদের আক্রমণের শিকার হয়েছেন নুসরত। কিন্তু তবুও নিজের জায়গা থেকে সরে দাঁড়াননি।

ঈশ্বরের আলাদা আলাদা নাম হলেও, আসলে ঈশ্বর এক। এমনই মনে করেন অভিনেত্রী। তাই আজ লোকনাথ বাবার জন্ম তিথি উপলক্ষে ও কচুয়া গিয়ে শ্রদ্ধা জানালেন তারকা সাংসদ।

মুসলিম পরিবারের মেয়ে হয়েও কেন তিনি অন্য ধর্মের উৎসবের যোগদান করেন এই নিয়ে আগে প্রচুর বিতর্ক হয়েছে। কিন্তু কোনও কথায় কান দেননি নুসরত। কারণ তিনি একতা ও সম্প্রীতিতে বিশ্বাস করেন। তাই কট্টরপন্থীদের নিশানায় থেকেও পৌঁছে গিয়েছেন দুর্গা মণ্ডপে। অষ্টমীর দিন একেবারে বঙ্গবধূর মতো অঞ্জলি দিয়েছেন। আবার রথ যাত্রায় একেবারে সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে রশি টেনেছেন।

স্বামী নিখিল জৈনকে নিয়ে জামাইষষ্ঠী পালন করেছেন। আবার ক্রিসমাসের সময় শিশুদের হাতে তুলে দিয়েছেন নানা উপহার। সেরকমই ইদের সময়ও নিয়ম করে রোজা পালন করেছেন। লোকনাথ বাবার জন্ম তিথিতেও সেই রীতি বদলালেন না তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেছেন নুসরত।

বসিরহাটের কচুয়া থেকে একটি ছবি শেয়ার করে তিনি লিখেছেন, “আজ লোকনাথ বাবার জন্মতিথি | বাবার চরণে প্রণাম জানাই| ছবিটি বসিরহাট কচুয়া বাবা লোকনাথের শান্তির ধামে৷”

ঈশ্বর যে এক এবং তিনি একতায় বিশ্বাস করে সেই সম্পর্কে নুসরত লিখছেন, “ঈশ্বর এক ও অদ্বিতীয়৷ আমি নুসরত জাহান৷ মুসলিম পরিবারের মেয়ে৷ আমি ধর্মের ভেদাভেদ মানি না৷ আমি যেমন কোরান পড়েছি৷ তেমন গীতা ও বাইবেল পড়েছি৷ কোথাও ধর্মের ভেদাভেদ ও হানাহানির কথা বলেনি।

#SecularIndia #HumaneIndia” বিয়ের পর শাঁখা সিঁদুর পরে সংসদে গিয়ে শপথ নিয়েছিলেন নুসরাত জাহান। গলায় মঙ্গলসূত্র ও কপালে সিঁদুর দেখে কট্টরপন্থীরা সেসময় রীতিমতো ফতোয়া জারি করেছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় কাকে নিয়ে নানা রকমের ট্রলিং হচ্ছিল।

একাধিকবার এরকম আক্রমণের মুখে পড়েও কখনো পিছিয়ে যাননি নুসরত জাহান। হিন্দু ঘরে বিয়ে নিয়েও তাঁকে কথা শুনতে হয়েছে। কিন্তু নুসরত বারবার স্পষ্ট জানিয়েছেন, তিনি নিজের ধর্ম কখনই ভুলে যাননি। কিন্তু অন্য ধর্মের প্রতি ও তার সমান শ্রদ্ধা রয়েছে। মঙ্গলবার জন্মাষ্টমীতেও তাই একইভাবে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন তিনি। আর লোকনাথ বাবার জন্ম তিথিতে ফের সেই সম্প্রীতির বার্তা দিলেন নুসরত জাহান।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও