কলকাতা- বাংলা চলচ্চিত্র জগতে অভিনেত্রী হিসেবে পাকাপাকি জায়গা তৈরি করেছিলেন শুরুতেই। প্রথম ছবিতেই জিৎ-এর বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন নুসরত জাহান। তার পর থেকে আর থেমে থাকতে হয়নি তাঁকে। অভিনয় জগতে নিজের জায়গা পাকাপাকি করার পরে রাজনীতির ময়দানেও তিনি সফল।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে বসিরহাট কেন্দ্র তৃণমূলের হয়ে প্রার্থী হয়েছিলেন নুসরত জাহান। বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে সাংসদ নির্বাচিত হন তিনি। তাই বলাই যায় রাজনীতির ময়দানেও শুরুতেই সফল তিনি। তবে শুধু অভিনয় বা রাজনীতি নয়। নুসরতের যে আরও একটি গুণ রয়েছে, তা তাঁর ভক্তরাও জানতেন কি না সন্দেহ। আর এই গুণটি হল, তারকা-সাংসদ ছবি আঁকাতেও পারদর্শী। সম্প্রতি নুসরত তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে সেই ছবি প্রকাশ্যে এনেছেন।

দেখা যাচ্ছে বাড়ির দেওয়ালে ছবি আঁকছেন অভিনেত্রী। গৌতম বুদ্ধের ছবি এঁকে শান্তির বার্তা দিয়েছেন নুসরত। সেই ছবি মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের পরেই ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সঙ্গে বিয়ে করেন নুসরত জাহান। ইস্তানবুলে গিয়ে রাজকীয় ভাবে বিয়ে করেন তাঁরা। এর পরে কলকাতায় এসে গ্র্যান্ড রিসেপশনের আয়োজন করেছিলেন নুসরত নিখিল। বিয়ে করে এসেই লোকসভায় শপথ নেন নুসরত। সিঁদুর, মঙ্গলসূত্র পরে শপথ নেওয়ায় তাঁকে কট্টরপন্থীদের আক্রমণের শিকার হতে হয়েছিল।

সেই সময়েই নুসরত জানিয়ে দিয়েছিলেন, তিনি মুসলিমই থাকবেন। কিন্তু অন্যান্য ধর্মের প্রতি তাঁর শ্রদ্ধা রয়েছে। এর পরে ইস্কনের রথযাত্রাতেও সামিল হয়েছিলেন।

এবছর দুর্গাপুজোতেও মৌলবাদীদের ফতোয়ার মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। অষ্টমীতে স্বামী নিখিল জৈনকে নিয়ে পুষ্পাঞ্জলি দেওয়ায় তাঁকে আক্রমণ করেন কট্টরপন্থীরা। ফের নুসরত জানান, তিনি ঈশ্বরের বিশেষ সন্তান। তিনি অন্যান্য ধর্মকেও শ্রদ্ধা করেন। তাই মৌলবাদীদের ফতোয়ার তোয়াক্কা না করে দশমীতেও সিঁদুর খেলেন নুসরত।