কলকাতা: করোনার জেরে স্তব্ধ মানুষের জীবন। বিনোদন জগতের কাজও বন্ধ। ঘরবন্দি তারকারা। অভিনেত্রী তথা সাংসদ অনবরত সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মানুষকে সচেতন করছেন এবং ঘরবন্দি দশায় সারা দিন কেমন কাটছে তাও তুলে ধরছেন। এবার নিজের লোকসভা কেন্দ্র বসিরহাটের মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন নুসরত।

সাংসদ তহবিল থেকে ৩০ লক্ষ টাকা এবং নিজের এক মাসের বেতন বসিরহাটের মানুষের জন্য দান করলেন তিনি। বসিরহাটে লোকসভা অন্তর্গত হাসপাতালগুলিতে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার নির্মাণ করতে এবং পর্যাপ্ত পরিমাণে চিকিৎসার ও করোনা প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সামগ্রী কেনার জন্য এই অর্থ দান করেছেন তারকা সাংসদ।

লকডাউন পরিস্থিতির মধ্যেও মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস পরে মানুষকে সচেতন করতে তিনি পৌঁছে যান চেতলা বাজারে। আর তার সঙ্গেই নিজের লোকসভা কেন্দ্রের মানুষের জন্য এই অর্থ সাহায্য় করেছেন তিনি। শুধু সাধারণ মানুষই নয়। স্বাস্থ্যকর্মীদের দিকেও নজর রেখেছেন নুসরত। বসিরহাট এলাকায় যত হাসপাতাল রয়েছে, সেখানকার স্বাস্থ্যকর্মীরা যাতে প্রত্যেকে যথাযথ মাস্ক, স্যানিটাইজার, গ্লাভস পান এবং করোনা চিকিৎসায় যাতে কোনওরকম খামতি না থাকে সেই দিকে বিশেষ ভাবে সচেতন থাকতে বলেছেন তিনি।

অভিনেত্রীর এই উদ্যোগে স্বাভাবিক ভাবেই সন্তু্ষ্ট বসিরহাটের মানুষ। অভিনেতা তথা ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ দেবও তাঁর এলাকার মানুষকে সাহায্য করেছেন। ঘাটালের মানুষের জন্য নিজের সাংসদ তহবিল থেকে ১ কোটি টাকা দান করেছেন দেব।

ঘাটাল লোকসভা অন্তর্গত হাসপাতালগুলিতে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বা আইসোলেশন ওয়ার্ড নির্মাণের জন্য, পর্যাপ্ত চিকিৎসার জন্য এবং করোনা মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় সামগ্রী কেনার জন্য এই টাকা দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন অভিনেতা। তবে শুধু সাধারণ মানুষ নয়। স্বাস্থ্যকর্মীরাও যাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে তাঁদের প্রয়োজনীয় জিনিস যেমন মাস্ক, হ্য়ান্ড স্যানিটাইজার, গ্লাভস পান সেই জন্যও এই টাকা ঘাটাল কেন্দ্রে দান করেছেন তিনি।