কলকাতা- অভিনেত্রী হিসেবে পাকাপাকি জায়গা করে নিয়েছিলেন প্রথমেই। রাজনীতির ময়দানে পা রেখেও শুরুতেই সফল নুসরত জাহান। তবে শুধু অভিনেত্রী ও রাজনীতিক হিসেবে নয়, মানুষ হিসেবেও তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা পালন করলেন তিনি।

সামনেই দিপাবলী। সারা দেশের মানুষ আলোর রোশনাইয়ে মেতে ওঠেন এই দিনগুলিত তে। খাওয়া দাওয়ার সঙ্গে ফুলঝুড়ি, চরকি, রংমশাল নিয়ে উৎসব পালন। একদিকে মানুষ টাকা দিয়ে বাজি কিনে পোড়ালেও সমাজের এক শ্রেণির মানুষ শুধু এক মুঠো খাবারের অপেক্ষায় দিন কাটান। সেই মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ালেন তৃণমূল সাংসদ। দীপাবলি উপলক্ষে পথের মানুষের হাতে নুসরত জাহান তুলে দিলেন নতুন পোশাক। সঙ্গে ছিলেন স্বামী নিখিল জৈনও।

বুধবার রাতে কলকাতা শহরেরই এক জায়গায় গিয়ে মানুষের হাতে নতুন পোশাক তুলে দেন নুসরত ও নিখিল। সেই ভিডিও নিজের ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছেন নুসরত। ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে, এক খুদেকে কোলে নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন নুসরত আর নিখিল এক এক করে পোশাক তুলে দিচ্ছেন মানুষের হাতে। জানা গিয়েছে, এক সংস্থার তরফ থেকে এই উপহার দুঃস্থদের হাতে তুলে দিয়েছেন নুসরত ও নিখিল।

নুসরত এই ভিডিও শেয়ার করে ক্যাপশনে হ্যাশট্যাগ সেক্যুলার ইন্ডিয়া কথাটি লেখেন। সিঁদুর ও মঙ্গলসূত্র পরে লোকসভায় শপথ গ্রহণ করেন। তার পরেই কট্টরপন্থীদের আক্রমণের মুখে পড়তে হয় তাঁকে। সম্প্রতি অষ্টমীতেও স্বামী নিখিল জৈনকে সঙ্গে নিয়ে পুষ্পাঞ্জলি দেন তিনি। তার পরেই তাঁকে আবার কট্টরপন্থীদের নিশানায় পড়তে হয়। এমনকী নুসরতকে নাম বদল করতেও বলা হয়। নুসরত স্পষ্ট জানান, তাঁর কাছে মানবাতাবাদই সবচেয়ে বড়। অন্যান্য ধর্মের প্রতিও তাঁর যথেষ্ট শ্রদ্ধা রয়েছে।