কলকাতা: করোনা আতঙ্কে কাঁপছে সারা বিশ্ব। প্রতিদিন বেড়েই চলেছে এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। ভারতেও সবকিছু স্তব্ধ। গোটা দেশ লকডাউন তাই ঘরবন্দি অবস্থাতেই দিন কাটাচ্ছে মানুষ। ব্যতিক্রম নন তারকারাও। এই ঘরবন্দি অবস্থায় তাই সকলেই নিজের মতো কাজ করছেন। কেউ ছবি আঁকছেন, কেউ গান গাইছেন, কেউ রান্না করছেন। অভিনেত্রী তথা বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ নুসরত জাহান সম্প্রতি লকডাউনের মাঝে কেক বানালেন।

ইনস্টাগ্রামে নিজেই সেই ভিডিও পোস্ট করেছেন নুসরত। দেখা যাচ্ছে এক মনে একটি ফ্রুট কেক বানাচ্ছেন নুসরত। আর নুসরতের এই কেক বানানো দেখে লোভ সামলাতে পারেননি আর এক তারকা সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। যিনি আবার নুসরতের অন্যতম ঘনিষ্ঠ বন্ধু। নুসরতের ভিডিওয় কমেন্ট করেন মিমি, আমরা কেক খাব না? খাব না কেক?

শুধু মিমিই নন। অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তীও নুসরতের এই ভিডিওয় কমেন্টে লিখেছেন, সুপার ওম্যান। এছাড়াও নুসরতের এই ভিডিও দেখে তাঁর ভক্তরাও মুগ্ধ হয়েছেন। কেউ লিখেছেন, আমরা কবে খাব। কেউ আবার লিখেছেন, দেখেই বোঝা যাচ্ছে দারুণ খেতে হবে।

তবে শুধু রান্না করে নয়। লকডাউনে নুসরতের আরও একটি গুণ প্রকাশ্যে এসেছে। ঘরবন্দি অবস্থায় ছবিও আঁকছেন তিনি। তার বেশ কিছু ইনস্টাগ্রামে পোস্টও করেছিলেন অভিনেত্রী।

তবে নিজে লকডাউনে থাকার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের সেবার কথা ভুলে যাননি বসিরহাটের সাংসদ। কিছুদিন আগেই বসিরহাটের লোকসভার আওতায় যে হাসপাতালগুলি রয়েছে সেগুলিতে আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি ও চিকিৎসা সামগ্রী, মাস্ক, স্যানিটাইজার কেনার জন্য় নিজের সাংসদ তহবিল থেকে ৫০ লক্ষ টাকা ও নিজের এক মাসের বেতন দিয়েছেন নুসরত।