লন্ডন: প্রেম বাধা মানে না। পরিস্থিতি, বয়স, রং, ধর্ম দেখেও যে ভালোবাসা হয় না ফের একবার সেই প্রমাণ মিলল। কোভিড-১৯ পরিস্থিতির মধ্যেই বিয়ে সারলেন নার্স ও চিকিৎসক। তাও তাঁদের কাজের জায়গা, হাসপাতালেই।

লন্ডনের সেন্ট থমাস হাসপাতালে বিয়ে সারলেন ৩৪ বছর বয়সী নার্স জান টিপিং এবং ৩০ বছর বয়সী চিকিৎসক আন্নালান নাভারাতনাম। দম্পতির বিয়ের এই অনুষ্ঠান লাইভ-স্ট্রিমিং করা হয়। তাঁদের স্বজনরা বাড়িতে বসেই বিয়ের অনুষ্ঠান দেখেন।

এই অগস্টেই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার কথা ছিল যুগলের। তবে করোনাভাইরাসের মহামারির জন্য তাঁরা বিয়ে বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। এক্ষেত্রে দুজনের আশঙ্কা ছিল, তাদের পরিবার উত্তর আয়ারল্যান্ড এবং শ্রীলঙ্কা থেকে তাঁদের বিয়েতে আসতে পারবে না।

তবুও শেষ পর্যন্ত আর বিয়েতে দেরি করেননি যুগল। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয় তাঁরা। এব্যাপারে তাঁরা হাসপাতাল থেকে অনুমতিও নিয়েছেন।

মনের মানুষকে বিয়ে করতে পারায় খুশি টিপিং বলেন, কর্মক্ষেত্রে বিয়ে করাটা একটু অদ্ভুত মনে হচ্ছে। আন্নালান নাভারাতনাম এই হাসপাতালে একবছর ধরে কাজ করছেন। তিনি জানিয়েছেন, একে অপরের কাছে কথা রাখতে পেরে এই বিয়ে করে তিনি খুব খুশি।

এই বিয়ের খবর শুনে ব্রিটেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক, টুইট করে বলেছেন, এটা চমৎকার ব্যাপার।

অন্যদিকে ব্রিটেনে করোনায় মৃত্যু ছাড়িয়ে গেছে ৪০ হাজার। ইউরোপে এটাই সর্বাধিক মৃত্যু সংখ্যা। এরফলে করোনা মোকাবিলায় ব্রিটিশ সরকারের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প