প্রতীতি ঘোষ, বারাকপুর: রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে দিদিকে বলো কর্মসূচিকে বাস্তবায়িত করতে সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পাঠানো প্রতিনিধি সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহান।

বসিরহাট দু’নম্বর ব্লকের খোলাপাতা গ্রাম পঞ্চায়েতের কাঁটাপুকুর, রঘুনাথপুর ময়নানি ক্লাবের মুক্তমঞ্চে সাংসদ নুসরাত। টাকি রোডের পথচলতি মানুষের কাছে দিদিকে বলো মোবাইল নম্বার , ইমেইল অ্যাড্রেস, ভিজিটিং কার্ড নিয়ে পথচলতি মানুষ থেকে গ্রামের প্রতিটি কোনায় কোনায় পৌঁছে দিচ্ছেন সাংসদ অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। সঙ্গে ছিলেন ব্লক সভাপতি সরোজ বন্দ্যোপাধ্যায়, চেয়ারম্যান এটিএম আব্দুল্লাহ, কার্যকরী সভাপতি সৌমেন মন্ডল, প্রধান অপারেশ মুখার্জী।

এমনকি গ্রামের মানুষের সঙ্গে কথা বলা তাদের সুখ-দুঃখের কথা শোনা এবং উন্নয়ন প্রকল্প কতটা বাস্তবায়িত হয়েছে, সেগুলো সাধারণ মানুষের কাছ থেকে সাংসদ শুনে নেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে দিদিকে বলে কর্মসূচিতে প্রত্যন্ত গ্রামে গিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে তাদের অভাব অভিযোগ কথা শুনেন‌।

সরাসরি অভিনেত্রী সাংসদ সঙ্গে কথা বলেন এলাকার মানুষ। রীতিমতো দিদিকে বলো কর্মসূচির মধ্যে প্রত্যন্ত গ্রামে গিয়ে মহিলা থেকে পুরুষ, যুবক-যুবতী ছাত্র-ছাত্রী সবার সঙ্গে কথা বলেন নুসরত। শুধু তাই নয়, সেখানে রীতিমত চা খেয়ে কথা বলেন। সাংসদকে কাছে পেয়ে খুশি এলাকাবাসী। স্থানীয় বাসিন্দাদের আব্দার মিটিয়ে সাধারন গ্রামবাসীদের সাথে সেলফিও তুললেন সেলিব্রিটি সাংসদ নুসরত জাহান।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন প্রত্যন্ত গ্রামের মানুষ থেকে যুবসমাজ। এমনকি বাংলায় বিজেপি এনআরসি চালু করার চেষ্টা করলে তা বাংলায় হবে না বলেন সাংসদ নুসরাত জাহান।