কলকাতা: রবিবার শেষ হয়েছে লোকসভা নির্বাচন৷ সেই আবহেই আজ, সোমবার মুর্শিদাবাদের কান্দি ও নওদা বিধানসভায় উপনির্বাচন৷ সকাল সাতটা থেকে শুরু হবে ভোটগ্রহণ৷এই ভোটগ্রহণ ঘিরে ফের মুখোমুখি লড়াইয়ে নামছেন কংগ্রেসের অধীর চৌধুরী ও তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারী৷

তৃণমূল বিধায়ক অপূর্ব সরকার ও আবু তাহের খান কংগ্রেস ছেড়ে সদ্য তৃণমূলে যোগ দিয়ে বহরমপুর ও মুর্শিদাবাদ লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী হয়েছেন। দলত্যাগ বিরোধী আইন এড়াতে তাঁরা কংগ্রেস বিধায়কের পদ ছাড়ায় ওই আসন দু’টি শূন্য হয়েছে। এই দুই নেতাই কান্দি ও নওদা থেকে পদত্যাগ করায় এই উপনির্বাচন হচ্ছে। গোটা দেশের লোকসভা ভোটের ফলাফলের সঙ্গেই এই দুই বিধানসভা কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষিত হবে।

কান্দিতে গৌতম রায়কে প্রার্থী করেছে রাজ্যের শাসক দল। বর্তমানে কান্দি পুরসভার চেয়ারম্যান পদে আছেন তিনি। এখানে কংগ্রেসের প্রার্থী সফিউল আলম খান। বিজেপি প্রার্থী করেছে সনত্‍ মন্ডলকে৷ বামেরা কোনও প্রার্থী দেয়নি কান্দিতে৷

অন্যদিকে, নওদায় তৃণমূলের প্রার্থী সাহিনা মমতাজ। তিনি মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের সদস্য। নওদায় কংগ্রেসের প্রার্থী করা হয়েছে সুনীল মণ্ডলকে। অনুপম মন্ডলকে প্রার্থী করেছে বিজেপি৷আর এস পির প্রার্থী হয়েছেন সিরাজুল ইসলাম মন্ডল।

বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রে ভোটের দিন শাসক দলের বিরুদ্ধে বুথ দখল, ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ পেয়ে এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত ছুটেছেন মুর্শিদাবাদের একাকালের বেতাজ বাদশা অধীর চৌধুরী৷ সেই অভিজ্ঞতা থেকে এই উপনির্বাচনে আরও সতর্ক তিনি৷ দুই ঘনিষ্ট প্রার্থীকে জেতাতে অধীর মরিয়া৷ ভোটের দিন যাতে এলাকায় পর্যাপ্ত নিরাপত্তাবাহিনী দেওয়া হয় তার জন্য ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশনের কাছে দরবার করেছেন তিনি। কমিশনকে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, জেলার দুটি বিধানসভার উপ-নির্বাচনে যদি কোনোরকম অশান্তি হয় তাহলে কংগ্রেস কর্মীরা মুর্শিদাবাদ তো অচল করবেন একই সঙ্গে সমগ্র বাংলাকে অচল করে দেবে কংগ্রেস। এদিকে রাজ্যের মন্ত্রী তথা মুর্শিদাবাদ জেলার পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারীও পণ করেছেন, দুটি কেন্দ্রই কংগ্রেসের থেকে ছিনিয়ে নিতে৷

উল্লেখ্য, এই দুটি বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে প্রায় আড়াই হাজার ভোটকর্মী নিয়োগ করা হচ্ছে। প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, নওদা বিধানসভা কেন্দ্রে ২৬৭টি এবং কান্দি বিধানসভা কেন্দ্রে ২৫০টির মতো বুথ রয়েছে। প্রতি বুথে চারজন করে ভোটকর্মী নিয়োগ করা হচ্ছে। রিজার্ভ সহ প্রায় ২৫০০জন কর্মী নিয়োগ করা হবে।