স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: কানে পিছনে হাত ঘুরিয়ে দিয়ে নাক না ধরে, সোজাসুজি ধরায় ভাল! আর তা হল: ১০০ ঘন্টার বেশি নতুন কনটেন্ট। ৩০ টি অরিজিনাল ওয়েবসিরিজ। যার মধ্যে রয়েছে ‘গোগোল সিজন ওয়ান পার্ট টু’, ‘জাপানি ডল’, ‘বিদ্যুৎ’, ‘বউ কেন সাইকো’, ‘তারানাথ তান্ত্রিক’, ‘বং জননী’, ‘মার্ডার বাই দ্য লেক’, দুপুর ঠাকুরপো ২: পার্ট টু’, ‘মানি হানি’, ‘স্পিতি ভ্যালি’, ‘মিস টিপসি’, ‘হোলি ফাঁক টু’,’ডিজে ভৌ-মিক’, ‘এ ‘কোন একেন’, ‘৬৬’, ‘৫ ফোড়ন’, ‘হ্যালো টু’, ‘দ্য এক্স পেরিমেন্ট’, ‘কমেডি অফ টেররস’, ‘ধানবাদ ব্লুজ’, ‘ঢাকা মেট্রো’, ‘সেই যে হলুদ পাখি টু’, ‘বাইশে শ্রাবণ’, ‘তানসেন-এর তানপুরা’, ‘ব্লাডি মেরি’, ‘নিশাচর’, ‘চরিত্রহীন’, ‘ব্যোমকেশ সিজন ফোর’, ‘নিখোঁজ’, ‘সেল নং ৪২’।

এদিকে ‘এক যে ছিল রাজা’, ‘ক্রিসক্রস’, ‘ব্যোমকেশ গোত্র’, অ্যাডভেঞ্চার অফ জোজো, ‘শাহজাহান এজেন্সি’-এর মতো এবছর বহুচর্চিত ১২টি সিনেমায় ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হবে। এছাড়া এই ১২ অরিজিনাল ছবি তৈরি হচ্ছে ‘হইচই’ প্ল্যাটফর্মের জন্য। তালিকায় রয়েছে ‘ডু নট ডিসর্টাব, ‘তিন কাপ চা’, ‘রং বদল’, ‘বিরিয়ানি’ ও ‘দ্য ফেস্টিভ্যালের নাম। শুধু কি তাই একই সঙ্গে যোগ হয়েছে আরও ২০০টি ছবি। মানে, ৭০০ টি সিনেমা যখন যেটা খুশি দেখতে পাবেন দর্শকরা।

সেই সঙ্গে শুধু বাঙলার গন্ডিতে আটকে থাকল না ‘হইচই’। কারণ বাংলা সঙ্গে সিরিজ়গুলি হিন্দি, তেলুগু, তামিল, আরবি ভাষায় ডাব করা বলে। ফলে বাংলার বাইরে অন্যান্য রাজ্যের দর্শকও তা দেখতে পারবে।

সম্প্রতি কলকাতার এক পাঁচতারা হোটেলে ছিল হইচইয়ের একবছরের পূর্তি অনুষ্ঠান। এখানে এসে ঝুলি এমনই চমক দিলেন মহেন্দ্র সোনি ও শ্রীকান্ত মোহতাসহ আরও অনেকে। হাজির ছিলেন প্রসেনজিৎ, যিশু সেনগুপ্ত, আবির, মিমি চক্রবর্তী, নুসরত জাহান, তনুশ্রী চক্রবর্তী, প্রিয়াঙ্কা সরকার, মোনালিসা, ইন্দ্রানী হালদার, রজতাভ দত্ত, যশ দাশগুপ্ত, অঙ্কুশ হাজরা, মীর, পদ্মনাভ দাশগুপ্ত সহ আরও অনেকে। সবার মুখে একটাই কথা এর থেকে বেশি চমকের আর কিছু হতে পারে না।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।