SBI bank
এসবিআই ব্যাংক

নয়াদিল্লি: দেশে উত্তরোত্তর বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। প্রশাসনের তরফ থেকে জারি হয়েছে একাধিক নিষেধাজ্ঞা। এমন সংকটকালীন পরিস্থিতিতে দেশের সর্ববৃহৎ পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্ক স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (State Bank Of India) বড় ঘোষণা করেছে। আসলে, স্টেট ব্যাঙ্ক তার গ্রাহকদের সুবিধার্থে তাদের সেভিংস অ্যাকাউন্ট (Saving Account) এক শাখা থেকে অন্য শাখায় ট্রান্সফার করার বড় সুবিধা দিয়েছে। সহজ কথায় বলতে, আপনার সেভিংস অ্যাকাউন্টটি ট্রান্সফার করতে এখন আর ব্যাঙ্কের শাখায় যেতে হবে না। গ্রাহকরা খুব সহজেই YONO SBI, YONO Lite এবং ব্যাঙ্ক-এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ঘরে বসে খুব সহজে যে কোনও শাখায় অ্যাকাউন্ট স্থানান্তর করা যাবে।

সেভিংস অ্যাকাউন্ট অন্য শাখায় ট্রান্সফার করতে হলে যা করতে হবে-

১. প্রথমেই SBI-এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.onlinesbi.com এ লগইন করতে হবে । ব্যবহারকারীর নাম এবং পাসওয়ার্ড সহ ব্যক্তিগত ব্যাঙ্কিং-এর বিকল্পটি বেছে নিতে হবে।

২. তারপর উপরের মেনুবারের ই-সার্ভিস অপশনটি বেছে নিতে হবে। এবং তারপরে ট্রান্সফার অফ সেভিংস অ্যাকাউন্টে ক্লিক করতে হবে। তারপরে আপনি যে অ্যাকাউন্টটি ট্রান্সফার করতে চান সেটি বেছে নিতে হবে।

৩. যদি কেবল একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকে এবং এটি গ্রাহক তথ্য ফাইলে (CIF) অন্তর্ভুক্ত থাকে তবে এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে নির্বাচিত হয়ে যাবে।

৪. এবার সেই শাখার কোডটি লিখতে হবে, যে শাখায় অ্যাকাউন্টটি ট্রান্সফার করা হবে। তারপর শর্তাবলী পড়তে হবে এবং পরে সাবমিট অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৫. তারপর সমস্ত তথ্যের ডিটেইলস যাচাই করে নিতে হবে এবং কনফার্ম অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৬. কনফার্ম করার পরে রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বরে একটি OTP আসবে। তারপর OTP পূরণ করে আরও একবার কনফার্ম করতে হবে।

৭. এরপরে আপনার স্ক্রিনে একটি মেসেজ আসবে যেখানে লেখা থাকবে আপনার অ্যাকাউন্টটি সফলভাবে ট্রান্সফার হয়েছে।

গ্রাহকদের অবশ্যই অ্যাকাউন্টটির সঙ্গে মোবাইল নম্বরটি রেজিস্টার্ড করা থাকতে হবে। ওয়েবসাইট ছাড়াও, YONO SBI, YONO Lite অ্যাপটি ব্যবহার করে অ্যাকাউন্ট ট্রান্সফার করা যেতে পারে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.