রাঁচি: প্রথমে উত্তরপ্রদেশ এবার ঝাড়খণ্ড ও হরিয়ানা! আরও দুটি বিজেপি শাসিত রাজ্যে বন্ধ হতে চলেছে বেআইনি কসাইখানা৷ সোমবার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে ঝাড়খণ্ড প্রশাসন৷ ইতিমধ্যে রাজ্যের বেআইনি কসাইখানা গুলিকে নির্দেশ পাঠান হয়েছে বলে খবর৷ নির্দেশনামায় বলা হয়েছে, কসাইখানা গুলিকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নির্দিষ্ট প্রমাণ দেখাতে না হলে বন্ধ করে দেওয়া হবে কসাইখানাগুলি৷

ঝাড়খণ্ডের স্বরাষ্ট্র দফতরের সচিব এসকেজি রাহাতে ইতিমধ্যে নির্দেশ পাঠিয়ে দিয়েছেন প্রতিটি ডেপুটি কমিশনার, পুলিশ সুপার, কর্পোরেশন, পুরসভার কাছে৷ যাতে দ্রুত বন্ধ করে দেওয়া হয় বেআইনি কসাইখানা গুলি৷ জানা গিয়েছে, সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য ও সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই এই ধরনের পদক্ষেপ করতে চলেছে সরকার৷ মান্যতা দেওয়া হচ্ছে সমস্ত রকমের নিয়মাবলি৷

জানা গিয়েছে, এই অভিযানে রাজ্যে যে সমস্ত মাংস বিক্রেতারা বেআইনি ভাবে মুরগী ও ছাগলের মাংস বিক্রি করেন তাদের নয়া লাইসেন্স দেওয়া হবে৷ কিন্তু যারা গরুর মাংস বেআইনি ভাবে বিক্রি করেন তাদের দোকানের ঝাঁপ বন্ধ হবে৷ ২০০৪-২০০৫ সালে ঝাড়খণ্ডে গরু ও মোষের মাংস বিক্রি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করেছিল রাজ্য সরকার৷ নির্দেশ না মেনে বিক্রি করলে দশ বছরের কারাদণ্ড ও দশ হাজার টাকা জরিমানা নিত সরকার৷

এছাড়া হরিয়ানাতেও কসাইখানা গুলির লাইসেন্স পুনরায় নবিকরণের করতে চাইছে না প্রশাসন৷ হরিয়ানা কাউ প্রোটেকশন অ্যান্ড এনরিচমেন্ট ইউনিটের সভাপতি ভানি লাল মঙ্গল জানিয়েছেন, এপ্রিলের শেষ সপ্তাহ বা মার্চের প্রথম দিকের মধ্যে রাজ্যে সমস্ত কসাইখান গুলি বন্ধের ব্যবস্থা করা হচ্ছে৷

 

 

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।