প্যারিস: কেরিয়ারে রজার ফেডেরারের ১০০ তম খেতাবের পথে কাঁটা হয়ে দাঁড়ালেন জকোভিচ। রুদ্ধশ্বাস প্যারিস মাস্টার্সের সেমিফাইনালে জকোভিচ জিতলেন ৭-৬ (৮-৬), ৫-৭, ৭-৬ (৭-৩) ব্যবধানে। সেইসঙ্গে টানা ২২ ম্যাচে অপরাজিত রইলেন টেনিসমহলে জোকার নামে পরিচিত সার্বিয়ান এই তারকা। শনিবার তিন ঘন্টার দীর্ঘ লড়াইয়ের পর অবশেষে ফেডেরারের বিরুদ্ধে টানা চতুর্থ জয় তুলে নেন তিনি।

এই জয়ের কারণে স্বাভাবিকভাবেই র‍্যাঙ্কিংয়ে ফের শীর্ষে পৌঁছানোর সুযোগ চলে এল জোকারের কাছে। সোমবার প্যারিস মাস্টার্স খেতাব জিততে পারলেই মসনদ ফিরে পাবেন তিনি। এই নিয়ে ৪৭ বার একে অপরের মুখোমুখি হয়েছিলেন দুই তারকা। তবে প্যারিস মাস্টার্স সেমিফাইনাল তাদের মধ্যে অন্যতম হিসেবেই বিবেচিত হবে বলে ম্যাচের পর জানান ‘জোকার’।

অন্যদিকে কোর্টে ভাল ছন্দে থাকলেও থ্রিলার ম্যাচে শেষ নার্ভ ধরে রাখতে পারেননি ২০টি গ্র্যান্ডস্লামের মালিক ফেডেরার। ম্যাচের পর জানান, ‘কোর্টে যে টেনিসটা আমি উপহার দিয়েছি, তাতে আমি খুশি। কিন্তু হার সবসময়ই হতাশার।’

পঞ্চম খেতাব জয়ের লক্ষ্যে শনিবার প্রথম সেট টাইব্রেকারে জিতে নেন সার্বিয়ান তারকা। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে প্রথম সেট জয়ের পথে ফেডেরারকে ৭-৬ ব্যবধানে পরাস্ত করেন তিনি। টাইব্রেকারে জকোভিচের পক্ষে ম্যাচের ফল ৮-৬। কিন্তু দ্বিতীয় সেট জিতে দুরন্ত কামব্যাক করেন সুইশ তারকা। দ্বিতীয় সেট ফেডেরার জিতে নেন ৫-৭ ব্যবধানে। প্যারিস মাস্টার্সের সেন্টার কোর্টে তৃতীয় সেট হয়ে দাঁড়ায় নির্ণায়ক। সেখানেই নার্ভের খেলায় বাজিমাৎ করে যান জকোভিচ। প্রথম সেটের মতই তৃতীয় সেটেও টাইব্রেকারে ৭-৩ ব্যবধানে দুরন্ত জয় ছিনিয়ে নেন জোকার। সেই সঙ্গে জিমি কোন্নর্সের পর দ্বিতীয় টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে ফেডেরারে ১০০ খেতাব জয়ের আশা শেষ হয়ে যায় ওখানেই। পরবর্তী টুর্নামেন্টের জন্য অপেক্ষা দীর্ঘায়িত হয়। অন্যদিকে পঞ্চম খেতাবের লক্ষ্যে ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেন সার্বিয়ান জকোভিচ।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও