নয়াদিল্লি: আগামী সপ্তাহে ভারত সফরে আসছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ৷ কিন্তু তার ঠিক আগে বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে সংশয় দেওয়া গেল ৷ যদিও ট্রাম্প মোদীকে পছন্দ করেন বলেই জানিয়েছেন৷

এর আগে ভারতকে ‘শুল্কের রাজা’ বলে আগেও ট্রাম্প সম্বোধন করেছিলেন তিনি। এ বার অভিযোগ করলেন, বাণিজ্য ক্ষেত্রে ভারত আমেরিকার সঙ্গে একদম ভাল ব্যবহার করে না। ভারত সফরের আগে তাঁর এহেন অভিযোগে কার্যতই অস্বস্তি বেড়েছে সাউথ ব্লকে। তবে বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে সংশয় প্রকাশ করলেও, ট্রাম্প প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করেন। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে তিনি খুব পছন্দ করেন বলে জানিয়েছেন।

স্ত্রী মেলানিয়াকে সঙ্গে নিয়ে ২৪ এবং ২৫ ফেব্রুয়ারি দু’দিনের ভারত সফরে আসছেন ট্রাম্প। অনেকেই তাকিয়ে আছেন ওই সময়ে ট্রাম্পের উপস্থিতিতে দু’দেশের মধ্যে বেশ কিছু চুক্তি হবে এই আশায়৷ কিন্তু তার আগে দু দেশের মধ্যে নানা বিষয়ে মতানৈক্য ধরা পডেছে । দিল্লি চায় ওয়াশিংটনে যেন ভারতীয় ইস্পাত এবং অ্যালুমিনিয়াম পণ্যের উপর থেকে শুল্ক প্রত্যাহার করে এবং বিনা শুল্কে মার্কিন বাজারে এদেশের পণ্যকে ঢুকতে দেওয়া হোক।

উল্টদিকে ট্রাম্প সরকার ভারতে কৃষিজাত পণ্য এবং চিকিৎসা যন্ত্রাংশের ব্যবসা করতে চায়৷ এছাড়া দাবি রয়েছে, ডিজিটাল পণ্য-সহ তাদের একাধিক পণ্য থেকে ভারত যেন শুল্ক প্রত্যাহার করে৷ তাছাড়া মার্কিন বাজারে ভারত বিশেষ সুযোগ পেলেও, ভারতীয় বাজারে মার্কিন পণ্যকে শুল্কছাড় দেওয়া হয় না বলে অভিযোগ মার্কিনীদের ৷

এই পরিস্থতিতে মঙ্গলবার প্রিন্স জর্জ কাউন্টি-তে সংবাদমাধ্যমের সামনে ট্রাম্প জানিয়েছেন, ভারত তাদের সঙ্গে ভাল ব্যবহার করে না। পাশপাশি ভারতের সঙ্গে দ্রুত বড় ধরনের বাণিজ্য চুক্তি নিয়েও তিনি সংশয় প্রকাশ করেন। যদিও আশ্বাস দিয়েছেন, ভারতের জন্য তিনি বড় কিছু ভেবে রেখেছেন। তবে সেটা নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে হওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

দু’ দেশের বাণিজ্য চুক্তির ব্যাপারে মার্কিন বাণিজ্য প্রতিনিধি রবার্ট লাইথিজ়ারের সঙ্গে এদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গয়ালের সঙ্গে ফোনে একাধিক বার কথাও হয়েছে তাঁর। যদিও এই বিষয়ে থাকা ঝুলে থাকা সমস্যাগুলির সমাধানসূত্র বেরোয়নি। ফলে লাইথিজ়ারের সফর অনিশ্চিত হয়ে দাঁড়িয়েছে।যার জেরে বাণিজ্য চুক্তি ঘিরেও ধোঁয়াশা তৈরি হচ্ছে।