ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: অবসরের বয়স কমিয়ে ৬০ থেকে ৫৮ করা হতে পারে, কেন্দ্রের এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার সম্ভাবনার কথা আগেই শোনা গিয়েছিল। এবার সরকারের তরফে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হল যে অবসরের বয়স এখনই কমানো হচ্ছে না। বুধবার সংসদে একথা জানানো হয়েছে।

এদিন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং একটি প্রশ্নের লিখিত জবাব দিতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন, ‘এখনই অবসরের বয়স কমানোর কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। ৬০ থেকে কমিয়ে ৫৮ করার কোনও সম্ভাবনা এখনই নেই।’

তিনি জানিয়েছেন, অল ইন্ডিয়া সার্ভিস আইন অনুযায়ী, যে কোনও ব্যক্তিকে নির্ধারিত সময়ের আগে অবসর নিতে হতেই পারে। সরকারের সেই অধিকার রয়েছে। দক্ষতার অভাব বা কাজে অক্ষমতার জন্য জনস্বার্থে সরকার এই সিদ্ধান্ত নিতে পারেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী। এই ধরনের নোটিশ দেওয়া হলেও সেক্ষেত্রে পর্যাপ্ত টাকা দেওয়া হয়।

তবে এই ধরনের সিদ্ধান্ত শুধু তাদের ক্ষেত্রেই নেওয়া হতে পারে যারা A বা B গ্রুপে রয়েছে। অন্য ক্ষেত্রে ৫৫ বছরের উর্দ্ধে চলে গেলে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সরকারের এক শীর্ষ আমলার মতে, অবসরের মেয়াদ বাড়ানো বা কমানো নিয়ে এই তর্ক নিরন্তর। সরকারের মধ্যে একটা যুক্তি রয়েছে ৬০ বছর বয়স এখন কিছুই নয়। বরং অবসরের মেয়াদ বাড়িয়ে ৬২ করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে ওই কর্মচারীর অভিজ্ঞতা সরকারের দফতরকেই সমৃদ্ধ করবে। কিন্তু অনেকে বলেন, সরকারি তন্ত্রে এমনিতেই প্রচুর কর্মচারী স্রেফ কোনও কাজ করেন না। তাঁরা অবসর নিলে সেই শূণ্যস্থানে বরং নতুন ছেলেমেয়ে এলে কাজে গতি আসতে পারে। তবে যাই যুক্তি থাক, আপাতত স্থিতাবস্থাই বজায় থাকছে।