স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: শুধু করোনাভাইরাসের টিকা নয়, তৃণমূলকে জব্দ করতে অন্য টিকাও দেওয়া হবে৷ বঙ্গে এসে সেই ইঙ্গিতই দিয়ে গেলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা৷

এদিন নাড্ডা বলেন, “আগামী ১ মার্চ থেকে দেশজুড়ে শুরু হচ্ছে দ্বিতীয় দফার করোনাভাইরাস টিকাকরণ প্রক্রিয়া। সেই পর্যায়ে ষাটোর্ধ্ব মানুষদের টিকা প্রদান করা হবে। একইসঙ্গে যে ৪৫ বছরের উর্ধ্বে মানুষদের কো-মর্বিডিটি আছে, তাঁরাও টিকা পাবেন। আয়ুষ্মান টিকা, প্রধানমন্ত্রী কৃষি সম্মান নিধি প্রকল্পের টিকা লাগবে। চালচোর, তোলাবাজ, কাটমানিদের বিরুদ্ধে যে টিকা লাগবে, তা আমরা তৈরি করব।”

আগামী ১ মার্চ থেকে ষাটোর্ধ্ব প্রবীণ নাগরিকদের করোনার টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হচ্ছে৷ এমনই ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর জানিয়েছেন, শুধু ৬০-এর উপরে বয়স এমন নাগরিকরাই নন, ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বে বয়স কিন্তু কো-মর্বিডিটি রয়েছে, এমন নাগরিকদেরও একই সঙ্গে টিকাকরণের কাজ শুরু হচ্ছে৷ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানিয়েছেন, গোটা দেশের প্রায় ১০ হাজার সরকারি কেন্দ্র এবং ২০ হাজার বেসরকারি কেন্দ্র থেকে টিকাকরণের কাজ চলবে৷

মন্ত্রী জানিয়য়েছেন, সরকারি কেন্দ্রগুলি থেকে বিনামূল্যেই ভ্যাকসিন মিলবে৷ কিন্তু বেসরকারি কেন্দ্র থেকে টিকা নিতে গেলে টাকা লাগবে৷ বেসরকারি কেন্দ্র থেকে ভ্য়াকসিন নিলে কত খরচ পড়বে, তা তিন- চার দিনের মধ্য়েই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী৷

বিধানসভা ভোটের মুখে নতুন স্লোগান প্রকাশ্যে এনেছে তৃণমূল। সেই নয়া স্লোগান ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’। এই স্লোগান নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে এদিন নাড্ডা বলেন, “মমতা কখনও নিজেকে বাংলার মা বলেন, কখনও বাংলার মা বলেন। কিন্তু বাংলার মা, মেয়েদের কী অবস্থা। সবথেকে বেশি নারীপাচার হয় বাংলায়। সবথেে বেশি গার্হ্যস্থ হিংসার শিকার বাংলার মহিলারা। আপনি বাংলার মেয়েদের জন্য কী চিন্তা করছেন?”

নির্বাচনে জিতলে ‘সোনার বাংলা’ গড়তে বিজেপি কী কী পদক্ষেপ করবে বৃহস্পতিবার তারও একটি রূপরেখা তুলে ধরেন নাড্ডা। বলেন, ‘‘সোনার বাংলায় কোনও কাটমানি থাকবে না। বাংলা হবে দুর্নীতিমুক্ত এবং উন্নয়নযুক্ত। কোনও সিন্ডিকেট, মাফিয়ারাজ থাকবে না। স্থানীয় বাজারের দ্রব্যকে আন্তর্জাতিক বাজারে নিয়ে যাব। দুর্ভাগ্যজনক ভাবে বাংলায় যে নকশালপন্থী কার্যকলাপ চলছে আমরা তা বন্ধ করব। বাংলার সংস্কৃতি ফিরিয়ে আনব।’’

‘সোনার বাংলা’ তৈরি করতে গেলে বাংলার মানুষের যোগদান প্রয়োজন। তাঁদের পরামর্শ নেওয়া দরকার। তাই বাংলার ২ কোটি মানুষের কাছ পরামর্শ নেওয়া হবে বলে জানান নাড্ডা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।