হায়দরাবাদ: তিনি যে কেবল বিশ্বের প্রথম সারির শাটলার, তাই নয়। পাশাপাশি ফোর্বসের সমীক্ষায় বিশ্বের ধনীতম মহিলা অ্যাথলিটদের মধ্যে গত বছর ত্রয়োদশতম স্থানে ছিলেন তিনি। পুরস্কারমূল্য, ব্র্যান্ড এনডোর্সমেন্ট মিলিয়ে গতবছর ৫.৫ মিলিয়ন ডলার অর্থ উপার্জনকারী পুসারলা ভেঙ্কট সিন্ধুর কাছে তবু অর্থের বিষয়টা গৌণই। দেশের হয়ে পদক জয়ই তাঁর প্রধান এবং একমাত্র লক্ষ্য, সাফ জানালেন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারতীয় শাটলার।

২০১৬ রিও অলিম্পিকে রুপো জয় দিয়ে বাণিজ্যিক মহলে শুরু হয়েছিল উত্থানটা। এরপর ২০১৯ বিডব্লুএফ ওয়ার্ল্ড ট্যুর চ্যাম্পিয়ন, ২০১৯ বিডব্লুএফ ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের পর সেই কদর একলাফে বেড়ে গিয়েছে অনেকটা। ব্র্যান্ড এনডোর্সমেন্টের নিরিখে এখন দেশের ধনীতম মহিলা অ্যাথলিট তিনি।

কিন্তু পদক জয়ই তাঁর একমাত্র প্রাধান্য, ইন্ডিয়া ট্যুডে’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানালেন পুসারলা। তবে ব্যাডমিন্টন কোর্টের বাইরে বিভিন্ন কমার্শিয়াল এবং বিজ্ঞাপনে শুটিং’য়ের বিষয়টি দারুণভাবে উপভোগ করেন তিনি। সাফ জানিয়েছেন হায়দরাবাদি শাটলার।

ইন্ডিয়া ট্যুডে’কে সিন্ধু জানিয়েছেন, ‘ফোর্বসের তালিকায় নিজের নাম দেখে বেশ খুশি হয়েছিলাম। ব্র্যান্ড এনডোর্সমেন্টের বিষয়গুলো কখনোই আমার ফোকাস নষ্ট করেনি বরং অন্যান্য সুপারস্টার অ্যাথলিটদের সঙ্গে সংযোগস্থাপনের এই মাধ্যম আমায় মোটিভেট করেছে সবসময়। আমি বিজ্ঞাপনের জন্য শুটিং করতে পছন্দ করি কারণ ব্যাডমিন্টনের বাইরে এই বিষয়গুলো অন্য কিছু নিয়ে থাকার সুযোগ দেয়।’

তবে তিনি কখনোই অর্থের পিছনে ছোটেননি। ‘আমার মনে হয় না আমার আর অর্থের প্রয়োজন আছে। পদক জয়ই আমার কাছে বড় বিষয়। আর পদক জয়ই তোমায় অর্থ এনে দেবে।’

জানিয়েছেন রিও অলিম্পিকে রুপোজয়ী শাটলার। উল্লেখ্য, অলিম্পিকে পদক জয়ের লক্ষ্যকে সামনে রেখে দেশের ৮ জন প্রথম সারির শাটলার করোনা আবহেই প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন শুক্রবার। স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়ায় অনুমতিতেই হায়দরাবাদের পুল্লেলা গোপীচাঁদ ব্যাডমিন্টন অ্যাকাডেমিতে প্রস্তুতি শুরু করেছেন পিভি সিন্ধু, সাইনা নেহওয়ালরা।

তেলেঙ্গানা সরকারের সবুজ সংকেত পাওয়ার পরেই দেশের প্রথম সারির শাটলারদের অনুশীলন চালু করার ব্যবস্থা গ্রহণ করে স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া। উল্লেখ্য, গত ৫ অগস্ট থেকে রাজ্যে গাইডলাইন মেনে সমস্তরকম স্পোর্টিং ইভেন্ট চালু করার অনুমতি দিয়েছে তেলেঙ্গানা সরকার।

সিন্ধু-সাইনা ছাড়াও ৭ অগস্ট অর্থাৎ শুক্রবার থেকে পুল্লেলা গোপীচাঁদ ব্যান্ডমিন্টন অ্যাকাডেমিতে অনুশীলন শুরু করেছেন কিদাম্বি শ্রীকান্ত, অশ্বিনী পোনাপ্পা, বি সাই প্রনীথ, সাত্বিকসাইরাজ রানকিরেড্ডি এবং এন সিক্কি রেড্ডি।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও