নয়াদিল্লি: লোকসভায় বিপক্ষের নেতা মল্লিকার্জুন খরগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে হিটলারের সঙ্গে তুলনা করেন৷ এরপরই রাগে ফেটে পড়ে ভারতীয় জনতা পার্টি৷ সোমবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ এক সাংবাদিক বৈঠকে ক্ষোভ উগরে দেন৷ সেখানেই প্রশ্নের ঝড় তোলেন তিনি৷

এদিন রবিশঙ্কর প্রসাদ কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খরগের বলা কথার পাল্টা হিসেবে বলেন “খরগে সাহেব পিএম মোদী কে হিটলার বলছেন৷ এটা কংগ্রেসের হতাশা৷ আপনারা মর্যাদা হারিয়ে ফেলছেন৷ মোদীজী নন ইন্দিরাজী হিটলারের মত কাজ করেছেন৷ উনি দেশে এমারজেন্সি করেছিলেন৷”

কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খরগে বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভারতের সঙ্গে সেটাই করতে চাইছেন যেটা একনায়ক হিটলার জার্মানির সঙ্গে করেছিল৷

এছাড়াও প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমও মোদী সরকারের বিরুদ্ধে মৌখিক হামলার কড়া জবাব দিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি৷ রবিশঙ্কর প্রসাদ জানিয়েছেন “চিদম্বরম সর্দার পটেলের মূর্তি ও রাম মন্দিরের উপর ব্যাঙ্গ করছেন৷ আমার মনে হয় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে এই বিষয়ে নিজেদের মনোভাব স্পষ্ট করা উচিত” রবিশঙ্কর জানান “আজ আমাদের গর্ব হয় যে দুনিয়ার সবথেকে উঁচু মূর্তি আমরা তৈরি করেছি৷ চিদম্বরমের বক্তব্য সর্দার প্যাটেলের অপমান করে৷”

সোমবার সকালেই পি চিদম্বরম টুইট করে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করেন৷ তিনি লেখেন কার্যকাল শুরুর সময় যে অঙ্গীকার ছিল সরকারের তা ছিল উন্নতি, চাকরি ও প্রতিটি ব্যাঙ্ক খাতায় পয়সা দেওয়া৷ সেই অঙ্গীকারের কিছুই পূরণ করতে না পেরে এখন নতুন অঙ্গীকার হল মন্দির, মূর্তি আর পুতুল৷

এখন রাম মন্দিরের মত বিষয় আবার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ প্রতি নিয়ত সাধু, রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ ও বিজেপির তরফ থেকে রাম মন্দির নিয়ে আক্রমণাত্বক উক্তি করা হচ্ছে৷ এর কারণেই কংগ্রেস দোষারোপ করছে যে লোকসভা নির্বাচনের আগেই বিজেপি একবার ফের এই বিষয়ে উত্তেজিত হয়ে উঠেছে৷